হাওয়ারীদের সহযোগিতা - পর্ব ৩ | আমার কথা
×

 

 

হাওয়ারীদের সহযোগিতা - পর্ব ৩

coSam ১৬৬


হাওয়ারীদের সহযোগিতা - পর্ব ৪ পড়তে এখানে ক্লিক করুন

আল্লাহ পাক হযরত ঈসা আঃ এর দোয়া কবুল করলেন। কিন্তু সাথে সাথে সাবধান করে দিলেন। কোরআনের ভাষায়- আল্লাহ বলেন-নিঃসন্দেহে আমি তোমাদের প্রতি আসমান হতে খাদ্যভান্ডার নাযিল করব। তবে এটার পরে তোমাদের থেকে যে কেউ নাশোকরী করবে আমি তাকে এমন শ্বাস্তি দিব যে, যা নিখিল বিশ্বের কাউকেও দিব না।

হযরত ইবনে আব্বাস রাঃ থেকে বর্ণিত, হযরত ঈসা আঃ বলেন- তোমরা ত্রিশ দিন ক্রমাগত রোজা রাখ। অতঃপর তোমরা ইচ্ছা মত আল্লাহ পাকের কাছে দোয়া কর। আল্লাহ তাই দান করবেন। তারা ত্রিশ দিন রোযা রাখার পর বলল- হে ঈসা! আমরা কারও জন্য কোন কাজ করলে সে আমাদেরকে আহার করায়।

আর আমরা আল্লাহর জন্য রোযা রাখলাম এ হিসাবে আল্লাহর কাছে বিশেষ খাদ্য চাচ্ছি। অতঃপর তারা আল্লাহর কাছে খাদ্যের জন্য দোয়া করল। ফেরেশতারা খাদ্যের একটি ভান্ডারসহ অবতীর্ণ হল। এতে সাতটি রুটি ও সাতটি মৎস্য ছিল। তারা হাওয়ারীদের সামনে খাদ্যের পাত্রটি রেখে দিল। তাদের সকলেই এটা হতে আহার করল।

হযরত সালমান ফারেসী রাঃ বলেছেন, হাওয়ারীরা হযরত ঈসা আঃ এর কাছে খাদ্য ভান্ডার চাইলে ঈসা আঃ পশমের তৈরী বস্ত্র পরিধান করে কেঁদে কেঁদে দোয়া করলেন- হে আল্লাহ! আসমান হতে আমাদের জন্য খাদ্য ভান্ডার নাযিল করুন। আল্লাহ পাক তাঁর দোয়া কবূল করলেন এবং খাদ্যভান্ডার নাযিল করলেন।

এ খাদ্য ভান্ডারটি দু'টুকরো মেঘ হিফাজত করেছিল। এক টুকরা মেঘ ভাণ্ডারটির উপরে আর অপর টুকরা ছিল ভান্ডারটির নিচে। হাওয়ারীরা দেখছিল যে, দু খন্ড মেঘের ছত্রছায়ায় খাদ্য ভান্ডার নাযিল হচ্ছে।

অবশেষে খাদ্যভান্ডারটি তাদের সামনে রেখে দেয়া হল। তা দেখে হযরত ঈসা আঃ ক্রন্দনরত অবস্থায় দোয়া করলেন- হে আমার রব! আমাকে শোকর গোযার বান্দাদের দলভূক্ত করুন। হে আল্লাহ! এখাদ্য আমাদের জন্য রহমত করে দিন শাস্তির কারণ করবেন না। অতঃপর হযরত ঈসা আঃ বলেন, তোমাদের মধ্যে যে উত্তম সে যেন এর মুখ বিসমিল্লাহ বলে খুলে ফেলে।

হাওয়ারীদের সর্দার শামাউন বলল, এ ব্যাপারে আপনি সর্বোত্তম ব্যক্তি। সুতরাং আপনিই মুখ খুলুন। হযরত ঈসা আঃ অযু করে দীর্ঘ সময় পর্যন্ত নামায পড়লেন। তিনি নামাযে খুব কাঁদলেন। নামায সমাপনান্তে বস্ত্রাবৃত খাদ্য ভান্ডার উন্মুক্ত করলেন আর দোয়া পড়লেন- যার অর্থ- আল্লাহর নামে তিনি সর্বোত্তম রিযিকদাতা।

হাওয়ারীদের সহযোগিতা - পর্ব ৪ পড়তে এখানে ক্লিক করুন

পরবর্তী গল্প
হাওয়ারীদের সহযোগিতা - পর্ব ৪

পূর্ববর্তী গল্প
হাওয়ারীদের সহযোগিতা - পর্ব ২

ক্যাটেগরী