হাওয়ারীদের সহযোগিতা - পর্ব ১ | আমার কথা
×

 

 

হাওয়ারীদের সহযোগিতা - পর্ব ১

coSam ১৬০


হাওয়ারীদের সহযোগিতা - পর্ব ২ পড়তে এখানে ক্লিক করুন

হযরত ঈসা (আঃ) এর বার বার আহ্বান সত্ত্বেও বনী ইসরাইলীরা আল্লাহর আনুগত্যের পরিবর্তে ঔদ্ধত্য ও অহংকার প্রদর্শন করল। তারা ঐতিজ্যগত বক্রমানসিকতা, হটকারীতা ও হটধর্মিতার কারণে সত্য হতে দূরে সরে পড়ল এমন কি ঈসা (আঃ)- কে ব্যঙ্গ বিদ্রুপ করতে শুরু করল। হযরত ঈসা (আঃ) সাময়িকভাবে তাদের হাল ছেড়ে দিয়ে বিভিন্ন এলাকায় ভ্রমণে বের হলেন।

চলতে চলতে এক সময় এক নদীর তীরে উপনীত হয়ে দেখতে পেলেন একদল লোক মাছ ধরছে। তারা সংখ্যায় ছিল বার জন। তাদের সর্দারের নাম শামউন। হযরত ঈসা আঃ তাদেরকে বলেন, তোমরা কি করছ? তারা বলল, আমরা মাছ ধরছি। তিনি বলেন, তোমরা কি আমার সাথী হতে পার? তারা জিজ্ঞেস করল, আপনি কে? তিনি বললেন- আমি মারইয়ামের পুত্র ঈসা। আমি আল্লাহর বান্দাহ এবং আল্লাহর পক্ষ হতে প্রেরিত রাসূল।

তারা বলল- আপনি নিজেকে আল্লাহর রাসূল বলে দাবী করছেন। কিন্তু আপনি যে আল্লাহর রাসূল তার প্রমাণ কি? আমরা আপনার এ দাবীকে সত্য বলে কিভাবে মেনে নিতে পারি? আপনি আপনার দাবীর সপক্ষে কোন নিদর্শন পেশ করতে পারলে আমরা আপনাকে রাসূল বলে মেনে নিতে রাজী আছি। তিনি বলেন, এখন তোমরা নদীতে জাল ফেলে দেখবে জালে এত অধিক পরিমাণ মাছ ধরা পড়বে যা ইতোপূর্বে তোমরা কখনও দেখনি।

তাদের সর্দার শামাউন নদীতে জাল নিক্ষেপ করল। অতঃপর জাল টেনে তুলল দেখা গেল জালে এত অধিক মাছ আটকা পড়ল যে, জাল ফেটে যাওয়ার উপক্রম হল। এত অধিক পরিমাণ মাছ তাদের জালে আর কখনও ধরা পড়েনি। এমন কি মাছের জন্য যে নৌকাটি এনেছিল তা ভরে গেল। অতঃপর তাদের জন্য আরও একটি নৌকা পর্যন্ত ধার নিতে হল।

উভয় নৌকা মাছে পরিপূর্ণ হয়ে গেল। তারা আশ্চর্য হয়ে গেল। তাদের আর বুঝতে বাকী থাকল না যে, কোন অলৌকিক শক্তির সাহায্য ছাড়া এটা কিছুতেই সম্ভব হয়নি। তারা হযরত ঈসা আঃ এর প্রতি ঈমান আনল এবং তার সাথী হয়ে সাথে গেল। তাদেরকে কোরআনে হাওয়ারীয়ীন বলা হয়েছে। হাওয়ারী অর্থ সাদা পোশাক পরিহিত ব্যক্তি। যেহেতু তারা সাদা পোশাক পরিধান করত তাই তাদেরকে হাওয়ারীয়ীন বলা হয়েছে।

এক তাফসীরে তাদেরকে ধোপা বলা হয়েছে। হযরত মারইয়াম আঃ পুত্র ঈসাকে বিভিন্ন কাজ শিক্ষা দেয়ার চিন্তা করছিলেন। এ পরিকল্পনা অনুযায়ী তিনি তাকে কখনও কখনও বিভিন্ন ধোপাদের কাছে পাঠালেন যাতে তিনি কাপড় ধোয়ার কাজটি ভালভাবে শিখে আসতে পারেন।

যাদের কাছে পাঠান হয়েছিল তার নিছক ধোপাই ছিল না তারা কাপড়ও রঙ করত।

একদা তাদের সর্দার কোথায় যাবে তাই হযরত ঈসা আঃ এর কাছে অনেকগুলো বস্ত্র দিয়ে বলল যে, আমি অমুক স্থানে যাচ্ছি। আপনি এ বস্ত্রগুলো বিভিন্ন রং এ রঙ্গীন করে রাখবেন। কোন বস্ত্রে কি ধরনের রং দিতে হবে তাও দেখিয়ে দিল। সে এটাও বলল আমি আশা করি যে, আমি ফিরে আসার সময় আপনি কাজটি শেষ করবেন।

হাওয়ারীদের সহযোগিতা - পর্ব ২ পড়তে এখানে ক্লিক করুন

পরবর্তী গল্প
হাওয়ারীদের সহযোগিতা - পর্ব ২

পূর্ববর্তী গল্প
এনতাকিয়া শহরে তাবলীগ – শেষ পর্ব

ক্যাটেগরী