হযরত হুসাইন মানসুর হাল্লাজ (রঃ) – পর্ব ৭ | আমার কথা
×

 

 

হযরত হুসাইন মানসুর হাল্লাজ (রঃ) – পর্ব ৭

coSam ১৭৩


হযরত হুসাইন মানসুর হাল্লাজ (রঃ) – পর্ব ৬ পড়তে এখানে ক্লিক করুন

খলীফার কাছে এ সংবাদ পৌঁছালে তিনি হুকুম দিলেন, চাবুক মেরে তাঁকে কতল করা হোক। তা না হলে আরও বিপত্তি ঘটতে পারে। নির্দেশমত তাঁকে কারাগার থেকে বের করে এনে তিনশ ঘা চাবুক বসানো হল। কিন্তু তাতেও তাঁর আনাল হক উচ্চারণ বন্ধ হল না। বরং আরও জোরে তিনি তা করতে লাগলেন। যে লোকটি আঘাত করছিল, সে বলল, প্রতিটি আঘাতে শোনা গেছে, মানসুর ভয় পেও না।

অত আঘাত সত্ত্বেও তিনি নির্বিকার, অবিচল। তারপর তাঁকে শূলে চড়াবার জন্য নিয়ে যাওয়া হল। এই মর্মান্তিক দৃশ্য দেখার জন্য প্রায় লক্ষাধিক লোকের সমাবেশ ঘটে। সেই বিশাল জনতার দিকে তাকিয়ে তিনি বলে উঠলেন, হক, হক, আনাল হক। এমন সময় এক দরবেশ তাঁর সামনে এসে বললেন, প্রেম কি বস্তু? তিনি বললেন, আজ নিজের চোখেই তা দেখতে পাবেন। কাল এবং পরশুও দেখতে পাবেন। অর্থ্যৎ, প্রথম দিন তাঁকে হত্যা করা হবে। দ্বিতীয় দিন তাঁর মরদেহ পুড়িয়ে ছাই করা হবে। তৃতীয় দিন সে ছাই বাতাসে উড়িয়ে দেয়া হবে। এগুলিই হল প্রেমের নিদর্শন।

তাঁকে যখন শূলে চড়ানো হয়, তখন তাঁর সেবক এসে তাঁর শেষ উপদেশ প্রার্থনা করেন। তিনি বললেন, নিজেকে যেকোন সৎ কাজে নিয়োজিত রেখো। না হলে রিপু তোমাকে মন্দ কাজে লাগিয়ে দেবে। তাঁর ছেলে এসে কিছু শুনতে চাইলেন। তিনি বললেন, দুনিয়ার সবাই পুণ্য কর্মের চেষ্টায় আছে। তুমি এমন একটি কাজের চেষ্টা কর, যার একটি কণা সারা বিশ্বের মানুষ ও জ্বিনের আমল হতেও উত্তম হয়। সেটি হল হাকীকতের একটি অণু।

অতঃপর তিনি সানন্দে শূলকাঠের দিকে এগিয়ে গেলেন। আপনার এত খুশী কিসের? কেউ তাঁকে শুধাল। তিনি বললেন, কারণ, আমি ডেরায় যাচ্ছি। এর চেয়ে বেশী আনন্দের সময় আর কখন হবে? এবার তিনি বিড়বিড় করে আবৃত্তি করতে লাগলেনঃ আমার বন্ধু আমার প্রতি মোটেই অবিচার করেননি। অতিথিকে যেমন পবিত্র ও উত্তম শরাব পান করানো হয়, আমার প্রভুও আমাকে তেমনি পান করিয়েছেন। শরাবের পাত্র কয়েকবার পান করাবার পর খাপও তরবারি-সহ এগিয়ে যাবার জন্য বন্ধু আমাকে সাদরে আহ্বান জানালেন। আর এই হল ঐ ব্যক্তির উপযুক্ত আযাব যে গ্রীষ্মকালে অজগরের সঙ্গে বসে পুরাতন শরাব পান করে।

তাঁকে নিয়ে যাওয়া হল শূলের তলায়। তিনি শূল চুম্বন করলেন। তারপর শূলের সিঁড়িতে পা রেখে বললেন, বীর পুরুষের মেরাজ হল শূলদন্ড। এবার তিনি কিবলামুখী হয়ে আল্লাহ্‌র দরবারে মোনাজাত করলেন, প্রভু গো! যা চেয়েছিলাম তাই পেলাম। যখন তাঁকে শূলে চড়ানো হল, তখন তাঁর শিষ্যগণ বললেন, হুজুর! যারা আপনার ওপর নিষ্ঠুর ব্যবহার করল, আর আমরা যারা আপনার সমর্থক, তাদের প্রতি আপনার ধারণা কি? তিনি বললেন, যারা আমার প্রতি নিষ্ঠুর ব্যবহার দেখাল, তারা দ্বিগুণ পুণ্য অর্জন করবে। আর যারা আমাকে সমর্থন করছে ও

আমার প্রতি পবিত্র ধারণা পোষণ করছ, তারা পাবে মাত্র একটি সওয়াব। কেননা, তোমরা আমার প্রতি কেবল ভালো ধারণাই পোষণ করছ। আর তারা একত্ববাদের শক্তি ও শরীয়তের কঠিন বিধান-এ দু’য়ের তাড়নায় তাড়িত। মনে রেখো, ইসলামে তওহীদই আসল। আর ভালো ধারণা তাঁর শাখা মাত্র।

সূত্রঃ তাযকিরাতুল আউলিয়া

হযরত হুসাইন মানসুর হাল্লাজ (রঃ) – পর্ব ৮ পড়তে এখানে ক্লিক করুন

পরবর্তী গল্প
হযরত হুসাইন মানসুর হাল্লাজ (রঃ) – পর্ব ৮

পূর্ববর্তী গল্প
হযরত হুসাইন মানসুর হাল্লাজ (রঃ) – পর্ব ৬

ক্যাটেগরী