হযরত হাসান বসরী (রঃ) - পর্ব ৮ | আমার কথা
×

 

 

হযরত হাসান বসরী (রঃ) - পর্ব ৮

coSam ১৮০


হযরত হাসান বসরী (রঃ) - ৭ম পড়তে এখানে ক্লিক করুন

তাঁর সম্বন্ধে এ ধরনের আরও বহু কথা শোনা যায়। আর এসবের মধ্যে তাঁর প্রকৃত পরিচয় ফুটে ওঠে। যেমন তিনি নিজেকে অতি তুচ্ছ জ্ঞান করতেন। একবার অনাবৃষ্টির ফলে দেশে দুর্ভিক্ষ দেখা দেয়। তখন প্রচুর লোক তাঁর কাছে এসে মাঠে গিয়ে এস্তেস্কার নামায পড়ার অনুরোধ জানায়।

তাদের ধারণা ও বিশ্বাস ছিল তিনি যদি নামায পড়ে আল্লাহ্‌র কাছে বৃষ্টির জন্য দোয়া করেন, তাহলে অবশ্যই আকাশ ভেঙে বৃষ্টি নামবে। কিন্তু তিনি বিনীতভাবে বললেন, তোমরা যদি বৃষ্টি চাও, তাহলে আমাকে এ শহর থেকে দূর করে দাও। আসলে তিনি নিজেকে এক অপরাধী গুনাহগার বান্দাহ বলে মনে করতেন। তাকে দেখাতো যেন এক প্রাণ দণ্ডআজ্ঞাপ্রাপ্ত আসামী। কোন হাসির চিহ্ন থাকত না চোখে-মুখে। সব সময়ে যেন ভয়ে ভয়ে আছেন- কখন কী হয়। অর্থাৎ প্রতি মুহুর্তে তিনি আল্লাহ্‌র ভয়ে ভীত হয়ে থাকতেন।

এ ভয় পরকালের ঘিরেও। রোজ কিয়ামতের দিন কী হবে, এই ভেবে তিনি শঙ্কিত অবস্থায় দিন কাটাতেন। ভয়ে কান্নাকাটিও করতেন। লোকে তাঁকে বলত, আপনি আলোকিত জ্ঞানী মানুষ। আপানার অত কান্না কিসের জন্য?

তিনি বলেন যদি অজ্ঞাতসারে কিছু করে থাকি, আল্লাহ্‌ যা পছন্দ করেন না। তখন তিনি যদি আমাকে বলেন, ওহে হাসান! আমার দরবারে তোমার ঠাই নেই। তোমার কোন এবাদাত বন্দেগী কবুল হবার নয়। তখন আমার কি হবে। আমি এই কথা ভেবে কান্নাকাটি করি।

নিজের সম্বন্ধে তাঁর নিজস্ব ধারণের আর একটি নমুনাঃ

তিনি এক লোককে কাঁদতে দেখে কারণ জিজ্ঞেস করলেন। লোকটি বললেন। আমি মুহাম্মদ ইবনে কাব (রঃ)-এর কাছে শুনেছি, বিশ্বাসীদের মধ্যে অনেককেই কিছুদিন জাহান্নামের শাস্তি ভোগ করতে হবে। এ কথা শোনার পর থেকে আমার এ অবস্থা। তাঁর কথা শুনে হযরত হাসান (রঃ) বলে উঠলেন, হায়! আমি যদি তেমন লোকদেরও একজন হতাম, তাহলে দীর্ঘদিন জাহান্নামের দণ্ড ভোগ করেও মুক্তি পেতাম। তাহলে কতো ভালই না হত।

একটি হাদীস পড়ে তিনি জানালেন, নেহাদ নামে এক লোক  জাহান্নামের আগুন থেকে সর্বশেষে মুক্তি পাবে। তিনি বললেন, হায়! আমি যদি সেই সর্বশেষ লোকটিও হতে পারতাম। অর্থাৎ, পাপের অজানা সম্ভাবনায় তাঁর মন কন্টকিত হত সর্বক্ষণ।

একদিন অজানা ভয়ে তাঁর চোখ থেকে পানি গড়াচ্ছে। তিনি বসে আছেন মসজিদের ছাদের কিনারায়। হঠাৎ এক ফোটা অশ্রু ঝরে পড়ল এক লোকের পরণের কাপড়ে। সে বলল, পানিটা পবিত্র না অপবিত্র? হযরত উত্তর দিলেন, ওটা অপবিত্র। তুমি কাপড়টা ধুয়ে নাও। কেননা, পাপীর চোখের পানি পবিত্র হতে পারে না।

হযরত হাসান বসরী (রঃ) -৯ম পড়তে এখানে ক্লিক করুন

সূত্রঃ তাযকিরাতুল আউলিয়া

পরবর্তী গল্প
হযরত হাসান বসরী (রঃ) - পর্ব ৯

পূর্ববর্তী গল্প
হযরত হাসান বসরী (রঃ) - পর্ব ৭

ক্যাটেগরী