হযরত সাঈদ ইবনে যায়েদ (রাঃ ) ও তাঁহার স্ত্রী ফাতেমা (রাঃ ) অর্থাৎ হযরত ওমর (রা:) এর বোনের কষ্ট সহ্য করা - ১ম পর্ব | আমার কথা
×

 

 

হযরত সাঈদ ইবনে যায়েদ (রাঃ ) ও তাঁহার স্ত্রী ফাতেমা (রাঃ ) অর্থাৎ হযরত ওমর (রা:) এর বোনের কষ্ট সহ্য করা - ১ম পর্ব

coSam ২৩৬


কায়েস (রহঃ) বলেন, আমি হযরত সাঈদ ইবনে যায়েদ ইবনে আমর ইবনে নুফায়েল (রাঃ) কে কুফার মসজিদে বলিতে শুনিয়াছি যে, খোদার কসম, ইসলাম গ্রহণের কারণে হযরত ওমর (রাঃ) আমাকে বাঁধিয়া রাখিয়াছিলেন। অপর এক রেওয়াতে আছে, তুমি যদি আমার অবস্থা দেখিতে, যখন হযরত ওমর (রাঃ) আমাকে ও তাঁহার বোনকে ইসলাম গ্রহণের কারণে বাঁধিয়া রাখিয়াছিলেন। হযরত ওমর (রাঃ) তখনও ইসলাম করিয়াছিলেন না।

হযরত আনাস (রাঃ) বলেন, হযরত ওমর (রাঃ) গলায় তরবারী ঝুলাইয়া ঘর হইতে বাহির লইলেন। পথে বনু যোহরা গোত্রের এক ব্যক্তির সহিত সাক্ষাৎ হইল। লোকটি জিজ্ঞাসা করিল, হে ওমর, কোথায় যাইতেছ? হযরত ওমর (রাঃ) বলিলেন, (নাউযুবিল্লাহ) হযরত মুহাম্মাদ (সাঃ) কে কতল করিতে ইচ্ছা করিয়াছি। লোকটি বলিল, হযরত মুহাম্মাদ (সাঃ) কে কতল করিলে বনু হাশীম ও বনু যোহরা হইতে কিভাবে আত্মরক্ষা করিবে? হযরত ওমর (রাঃ) তাহাকে বলিলেন, মনে হয় নিজের পূর্ব ধর্ম পরিত্যাগ করিয়া তুমিও বেদ্বীন হইয়া গিয়াছ।

লোকটি বলিল, আমি কি তোমাকে ইহা অপেক্ষা আশ্চর্য খবর বলিবে? হযরত ওমর (রাঃ) বলিলেন, তাহা কি? লোকটি বলিল, তাহা কি? লোকটি বলিল, তোমার বোন ও বোনজামাই উভয়ে তোমার ধর্ম ত্যাগ করিয়া নতুন দ্বীন গ্রহণ করিয়াছে। ইহা শুনিয়া হযরত ওমর (রাঃ) অত্যন্ত রাগান্বিত হইলেন এবং বোনের বাড়ীর দিকে চলিলেন।

তিনি যখন বোন ও বোন জামাইয়ের নিকট পৌঁছিলেন তখন সেখানে তাহাদের নিকট মুহাজিরীনদের মধ্য হইতে হযরত খাব্বাব (রাঃ) নামে এক ব্যক্তি বসিয়াছিলেন। হযরত খাব্বাব (রাঃ) হযরত ওমর (রাঃ) এর পায়ের আওয়াজ শুনিয়া ঘরের ভিতর আত্মগোপন করিলেন। হযরত ওমর (রাঃ) ঘরে প্রবেশ করিয়া জিজ্ঞাসা করিলেন, কিসের এই চাপা আওয়াজ, যাহা আমি তোমাদের নিকট হইতে শুনিতে পাইলাম?

বর্ণনাকারী বলেন, তাহারা তখন সূরা তা-হা পাঠ করিতেছিলেন। বোন ও বোন জামাই উভয়ে বলিলেন,আমরা পরস্পর কথাবার্তা বলিতেছিলাম। হযরত ওমর (রাঃ) বলিলেন, তোমরা মনে হয় সেই নবীর প্রতি ঝুকিয়া পড়িয়াছ। বোন জামাই উত্তরে বলিলেন, হে ওমর, তোমার কি মনে হয়! যদি তোমার ধর্ম ব্যতিত সত্য অন্যত্র থাকিয়া থাকে? ইহা শুনামাত্রই হযরত ওমর (রাঃ) আপন বোনজামাইয়ের উপর ঝাঁপাইয়া পড়িলেন এবং তাহাকে অত্যাধিকরূপে পদদলিত করিলেন। তাঁহার বোন নিজের স্বামীর উপর হইতে তাঁহাকে সরাইবার জন্য আসিলে তিনি আপন বোনকে

এমন জোরে মারিলেন যে, চেহারা রক্তাক্ত হইয়া গেল। বোন অত্যন্ত রাগান্বিত হইয়া থাকে তবুও কি আমরা তাহা গ্রহণ করিব না? এই কথা বলিয়া তিনি বলিলেন, আমি সাক্ষ্য দিতেছি যে, আল্লাহ ব্যতিত আর কোন মাবুদ নাই সাক্ষ্য দিতেছি যে, হযরত মুহাম্মাদ (সাঃ) আল্লাহর রাসূল। হযরত ওমর (রাঃ) যখন তাহাদের ব্যাপারে নিরাশ হইয়া গেলেন তখন বলিলেন, তোমাদের সেই কিতাব আমাকে দাও, আমি তাহা পড়িব।

সূত্রঃ হায়াতুস সাহাবা

হযরত সাঈদ ইবনে যায়েদ (রাঃ ) ও তাঁহার স্ত্রী ফাতেমা (রাঃ ) অর্থাৎ হযরত ওমর (রা:) এর বোনের কষ্ট সহ্য করা - ২য় পর্ব পড়তে এখানে ক্লিক করুন


পরবর্তী গল্প
হযরত সাঈদ ইবনে যায়েদ (রাঃ ) ও তাঁহার স্ত্রী ফাতেমা (রাঃ ) অর্থাৎ হযরত ওমর (রা:) এর বোনের কষ্ট সহ্য করা - ২য় পর্ব

পূর্ববর্তী গল্প
হযরত আম্মার ইবনে ইয়াসির (রাঃ ) ও তাঁহার পরিবারের কষ্ট সহ্য করা

ক্যাটেগরী