হযরত মূসার (আঃ) সাথে শয়তানের সাক্ষাৎ

হযরত ইবনু ওমর (রাঃ) বলেছেনঃ হযরত মুসা (আঃ) এর সাথে শয়তান সাক্ষাৎ করেছিল। এবং বলেছিল হে মুছা! আল্লাহ্‌ তায়ালা আপনাকে তাঁর রাসূল হিসাবে মনোনীত করেছেন। এবং আপনার সঙ্গে তিনি কথা বলেছনে।  তা, আমি তো আল্লাহর এক সৃষ্টি। আমি একটা গুনাহ করে ফেলেছি। 

এখন তাওবা করতে চাইছি। আপনি আল্লাহর দরবারে আমার জন্য সুপারিশ করুন। যাতে তিনি আমার তওবা কবুল করেন। হযরত মুছা (আঃ) আল্লাহর উদ্দেশে দোয়া করেন।  আল্লাহ্‌ বলেন, ওহে মুছা! আমি তোমার ডাকে সাড়া দিয়েছি। সুতরাং হযরত মুছা (আঃ) ইবলীসের সাথে সাক্ষাৎ করেন। এবং তাঁকে বলেন, আমাকে এই নির্দেশ দেওয়া হয়েছে যে, তুই যদি আদমের কবরে সাজদা করিস, তবে তোর তওবা কবুল করে হবে। 

শয়তান তখন অহংকারে উত্তেজিত হয়ে বলতে থাকে, আমি বেঁচে থাকাকালে সাজদা করিনি। মারা যাওয়ার পর তাঁকে কিভাবে সাজদা করতে পারি! এরপর ইবলীস বলে। হে মূসা! আপনি যেহেতু আমার জন্য সুপারিশ করেছেন, সেহেতু আমার উপর আপনার হক এসে গেছে। তাই বলছি আপনি তিনটি ক্ষেত্রে আমার কথা স্মরণ করবেন। অর্থাৎ আমার বিষয়ে হুঁশিয়ার থাকবেন। ধ্বংসের সেই ক্ষেত্রে বা পরিস্থিতি তিনটি হল এইঃ

(১) যখন রাগ হবে, মনে করবে এটা আমার প্রভাবে হয়েছে, যা আপনার অন্তরে পড়েছে। আমার চোখ সেই সময় আপনার চোখে বসানো থাকে।  এবং আমি সেই সময় আপনার রক্তের মধ্যে দৌড়াদৌড়ী করতে থাকি। 

(২) যখন দু’দল সৈন্য পরষ্পর যুদ্ধ করতে থাকে, সেই সময় আমিই মুজাহিদের কাছে আসি। এবং তাঁকে বিবি-বাচ্চার কথা মনে  করিয়ে দিতে থাকি, যতক্ষণ না সে পিছনে ফিরে পালায়। 

(৩) না-মাহরম (যার সঙ্গে বিয়ে অবৈধ নয় এমন) মহিলার সঙ্গে থেকেও বাঁচবেন। কেননা সেই সময় আমি পরস্পরের দূত হিসাবে কাজ করি। 

আরো পড়তে পারেন

দুঃখিত, কপি করবেন না।