হযরত মালেক দীনার (রঃ) – পর্ব ৬ | আমার কথা
×

 

 

হযরত মালেক দীনার (রঃ) – পর্ব ৬

coSam ৯৯


হযরত মালেক দীনার (রঃ) – পর্ব ৫ পড়তে এখানে ক্লিক করুন  

মসজিদে ইহুদী ঢুকছে বলে লোকটি লাঠি হাতে ছুটে এল। কিন্তু এসে দেখে, বসে আছেন হযরত মালেক দীনার (রঃ) স্বয়ং। লজ্জা পেয়ে সে তাঁর কাছে ক্ষমা চাইল। মাফ করুন হুজুর! আমাদের এলাকায় ইহুদীরা ছাড়া দিনের বেলায় কেউ খেজুর খায় না। সব মুসলমানই রোজা রাখে। আমার নাবালক ছেলে কিছু না বুঝে আপনাকে ইহুদী বলে মনে করেছে।

লোকটির কথা শুনে হযরত মালেক (রঃ) আত্মমুখী হলেন। তাঁর মনে হল, ছেলেটির ইহুদী সম্বোধনের মধ্যে অবশ্যই কোনও ইঙ্গিত আছে। তিনি বলে উঠলেন, ইয়া আল্লাহ! খেজুর খাওয়ার আগেই এক মাসুম শিশুর মুখ থেকে ইহুদী আখ্যায় ভূষিত হলাম। সেগুলি যদি খেয়েই ফেলতাম, তাহলে অধম কাফের রূপেই গণ্য হতাম। আমি আর এই খেজুর খাচ্ছি না। আর মুহূর্তের শপথ করেলন, আজীবন খেজুর খাবেন না।

মানুষের পাপের কি পরিণতি হয়, হযরত মালেক (রঃ) তাঁর নিজ নয়নে দেখে গেছেন। একদিন এক মুমূর্ষ রোগীর পাশে বসে তাকে কালেমায়ে শাহাদাত পাঠ করানোর বৃথা চেষ্টা করলেন। যতবারই তিনি তাকে কালেমা পড়ে শোনাতে যান, ততবারই সে কালেমার বদলে শুধু দশ, এগারো ইত্যাদি সংখ্যা উচ্চারণ করতে থাকে। হযরত তাকে শুধালেন, তুমি কি কাজ করতে?

সে বলল, অর্থলগ্নী কারবার করতাম।

তুমি কালেমা পড়ছ না কেন?

পড়তে তো চাই, কিন্তু লকলকে আগুনের শিখা আমার দিকে ধেয়ে আসে যে। আর অনিচ্ছা সত্ত্বেও আমার মুখ দিয়ে সংখ্যা বেরিয়ে আসে। হযরত তার কথা শুনে বুঝলেন, লোকটি মালের ওজনে কম দিত আর সুদ নিত। তাই তার এ অবস্থা।

বসরা শহরে একবার আগুন লাগে। বিরাট অগ্নিকান্ড। আগুনের লেলিহান শিখা ছড়িয়ে পড়ল সর্বত্র। হযরত মালেক দীনার (রঃ) নিজের জুতা আর লাঠি নিয়ে এক ছাদের ওপর উঠে সেখান থেকে সেই ভয়ংকার দৃশ্য দেখছিলেন। যাদের মালপত্র কম ও হালকা, তারা কোন রকমে আগুন থেকে বেরিয়ে এল। কিন্তু যাদের মাল ভারী আর বেশী, তারা আটকে পড়ল আগুনে। জানমাল সব পুড়ে গেল। তিনি বললেন, এর মধ্যে বিচার দিনের নিদর্শন আছে। সেদিনও একই ভাবে নিষ্পাপ ও স্বল্প পাপী মানুষ মুক্তি পাবে। কিন্তু আগুনে পুড়বে তারা, যাদের পাপের পরিমাণ ও ওজন দুইই বেশী।

তাঁর সম্বন্ধে অন্য এক সাধক হযরত জাফর হযরত ইবনে সোলায়মান (রঃ) একটি ঘটনার বিবরণ দিয়েছেন। তিনি একবার হযরত মালেক (রঃ)-এর হজ্জের সহযাত্রী ছিলেন। দুজনে এহরাম বেঁধে গিয়ে দাঁড়ালেন কাবার সামনে। পাঠ করতে লাগলেন তালবিয়া আল্লাহুম্মা লাব্বাইকা। প্রভু গো! আমি আপনার দরবারে হাজির। কিন্তু হঠাৎ তালবিয়া পাঠের সঙ্গে সঙ্গে মালেক দীনার (রঃ) অচৈতন্য অবস্থায় পড়ে গেলেন। পড়ে চেতনা ফিরে এলে হযরত জাফর (রঃ) তাঁকে জিজ্ঞেস করলেন, আপনি হঠাৎ এমন জ্ঞান হারালেন কেন?

সূত্রঃ তাযকিরাতুল আউলিয়া

হযরত মালেক দীনার (রঃ) – পর্ব ৭ পড়তে এখানে ক্লিক করুন  

পরবর্তী গল্প
হযরত মালেক দীনার (রঃ) – পর্ব ৭

পূর্ববর্তী গল্প
হযরত মালেক দীনার (রঃ) – পর্ব ৫

ক্যাটেগরী