হযরত ঈসা (আঃ)-কে জীবন্ত আকাশে উত্তোলন – শেষ পর্ব

হযরত ঈসা (আঃ)-কে জীবন্ত আকাশে উত্তোলন – তৃতীয় পর্ব পড়তে এখানে ক্লিক করুন

রাজা পিলাতীস তাদের কথা শুনে হযরত ঈসা (আঃ) কে হত্যার অনুমতি প্রদান করল। ইহুদীরা এত সহজে তাদের ষড়যন্ত্রে সফল হবে ভাবতে পারেনি। এখন হযরত ঈসা (আঃ) কে হত্যার পথ পরিষ্কার হয়েছে। তাই তারা তাকে হত্যার সুযোগ খুজতে থাকল। কোথাও তাকে একাকী পাওয়া গেলে কার্যসিদ্ধি করতে হবে কেননা, জনসমক্ষে তাকে হত্যা করা সম্ভব নয়। কারণ জনসাধারণ অনেকেই তার ভক্ত।

হযরত ঈসা (আঃ) ইহুদীদের ষড়যন্ত্র এবং তাকে হত্যা করবার পাঁয়তারা সম্পর্কে বুঝতে পেরে হাওয়ারীদের একত্রিত করে বলেন যে, কোরআনের ভাষায়-

অনন্তর যখন হযরত ঈসা (আঃ) ইহুদীদের ষড়যন্ত্র অনুভব করতে পারলেন তখন তিনি বলেন-আল্লাহর দিকে কে আমার সাহায্যকারী হবে? হাওয়ারীরা বলল, আমরা আল্লাহর দ্বীনের সাহায্যকারী। আমরা আপনার কথা মোতাবেক আল্লাহর প্রতি ঈমান এনেছি। আপনি সাক্ষী থাকুন যে আমরা আপনার অনুগত।

তাদের জবাবে হযরত ঈসা (আঃ) সন্তুষ্ট হলেন। তিনি অনুভব করতে পারলেন, যে ইহুদীদের ষড়যন্ত্রে তাঁর ইহজগত ত্যাগ করতে হলেও কোন চিন্তার কারণ নেই। কেননা, তাঁর ওফাতের পর হাওয়ারীরা দ্বীনের সাহায্যকারী হিসাবে অবশিষ্ট রয়েছে। হাওয়ারীদের কথায় নিশ্চিন্ত হয়ে তিনি দ্বীনের দাওয়াত ও তাবলীগের কাজে পূর্ণভাবে নিয়োজিত রইলেন। সাথে সাথে তিনি ইহুদীদের গতিবিধিও লক্ষ্য করতে থাকলেন। হযরত যহাক (রঃ) থেকে বর্ণিত হাওয়ারীরা ইহুদীদের হযরত ঈসা (আঃ) কে হত্যার সিদ্ধান্তের ষড়যন্ত্রের সংবাদ পেয়ে এক জায়গায় জড় হল। তখন হযরত ঈসা (আঃ) তাদের কাছেই ছিলেন। ইহুদীরা তাকে খুঁজতে ছিল। শয়তান ইহুদীদেরকে তাঁর খোঁজ দিল। ইহুদীরা তাঁর অবস্থান স্থলের সংবাদ পেয়ে তথায় চার হাজার লোক নিয়ে হযরত ঈসা (আঃ) ও হাওয়ারীদেরকে অবরোধ করল।

তিনি হাওয়ারীদেরকে লক্ষ্য করে বলেন, তোমাদের মাঝে এমন কোন ব্যক্তি কি এজন্য প্রস্তত আছ যে, সে ঘর হতে বের হওয়ার সাথে সাথে তাকে হত্যা করে দেয়া হবে। আর সে আমার সাথ জান্নাতে থাকবে? হাওয়ারীদের একজন বলল আমি প্রস্তুত আছি। তিনি তাকে স্বীয় জামা ও পাগড়ী দান করলেন। অতঃপর আল্লাহর পক্ষ হতে তাকে হযরত ঈসা (আঃ) এর আকৃতি দান করা হল। সে বের হয়ে আসলে ইহুদীরা তাকে শূলবিদ্ধ করে হত্যা করল। আর আল্লাহ পাক হযরত ঈসা (আঃ) কে আসমানে তুলে নিলেন।

হযরত ঈসা (আঃ)-কে জীবন্ত আকাশে উত্তোলন – তৃতীয় পর্ব পড়তে এখানে ক্লিক করুন

আরো পড়তে পারেন

দুঃখিত, কপি করবেন না।