হযরত ইব্রাহীম আদহাম (রঃ) – পর্ব ৪ | আমার কথা
×

 

 

হযরত ইব্রাহীম আদহাম (রঃ) – পর্ব ৪

coSam ২৩৫


হযরত ইব্রাহীম আদহাম (রঃ) – পর্ব ৩ পড়তে এখানে ক্লিক করুন

তাঁর মক্কা পরিভ্রমণের কাহিনীও বেশ চমকপ্রদ। মক্কার পথে ইরাক সীমান্তে যাতুল এরকে তিনি সত্তরজন দরবেশের দেখা পান। একজন মাত্র জীবিত। আর সবাই মৃত- রক্তাক্ত অবস্থায় শায়িত। যিনি জীবিত ছিলেন হযরত ইব্রাহীম (রঃ) তাঁরই কাছে ঘটনার বিবরণ জানতে চাইলেন। তিনি অবশ্য প্রথমে তাঁকে সদুপদেশ দিলেন। যেমন, কেবলমাত্র পানিকেই জীবনের অবলম্বন কর। আল্লাহ থেকে দূরে সরে যাবে না। সরে গেলে তাঁর রহমত থেকেও সরে যাবে। সরে গেলে তাঁর রহমত থেকেও সরে যাবে।

আবার খুব বেশি কাছাকাছি হয়ো না। ক্লান্তি আসবে। অপরাধ করে অশান্তি সৃষ্টি করা মোটেই উচিত নয়। হত্যাকারী কপট বন্ধুদের থেকে সাবধান ইত্যাদি। পরে ঘটনার বিবরণ দিলেন। বললেন, একটি সংসার বিবাগী দরবেশ দল আল্লাহর ওপর নির্ভর করেই তার পথে চলছিলেন। তাঁরা স্থির করেন, কারো সঙ্গে কথা বলবেন না। আল্লাহ ছাড়া কাউকে ভয় করবেন না। তিনি ছাড়া আর কারও ওপর নির্ভর করবেন না। তো, এই জঙ্গল পার হয়ে কাবা শরীফে পৌঁছেই তাঁরা হযরত খিজির (আঃ)-এর দেখা পান।

তাঁকে সালাম জানিয়ে সানন্দে তাঁরা হযরত খিজির (আঃ)-এর দেখা পান। তাঁকে সালাম দিয়ে সানন্দে তাঁরা বলে উঠলেন, আল্লাহকে ধন্যবাদ, আমাদের পরিশ্রম সার্থক, মনোবাঞ্ছা পূর্ণ। ধন্যবাদ আল্লাহকে যে এমন মহান ব্যক্তি আমাদের অভ্যর্থনায় এসেছেন। ঠিক তখনই তাঁরা আসমানী শব্দ শুনলেন, রে ভণ্ডের দল, আমার সঙ্গে তোমাদের এই প্রতিজ্ঞা ছিল? আমাকে ভুলে তোমরা কি এবার অন্যের সাথে বন্ধুত্বে আবদ্ধ হলে? যাও এ পরধারে আমি তোমাদের খতম করে ফেলব। হলও ঠিক তাই। ঐ সেই প্রেম দগ্ধ শায়িত ব্যক্তিগণ, জীবিত ব্যক্তি হযরত আদহাম (রঃ)-কে দেখালেন। বললেন, খুব সাবধানে এগিয়ে যাও। আর তা না হলে বিপদসঙ্কুল পথ থেকে এখনই প্রত্যাবর্তন কর।

হযরত ইব্রাহীম (রঃ) তাঁর কথা শুনে নির্বাক হয়ে গেলেন। কিছুক্ষণ পরে জিজ্ঞেস করলেন, কিন্তু আপনি কিভাবে রক্ষা পেলেন? তিনি বললেন, এরা অবশ্য সবাই সিদ্ধপুরুষ ছিলেন। আর আমি এদের কাছে শিক্ষা গ্রহণ করছিলাম। আমি তখনও সিদ্ধি লাভ করিনি। বিশুদ্ধ প্রেমিক হবার চেষ্টায় ছিলাম। বলতে বলতে হঠাৎ তিনিও মৃত্যুমুখে পতিত হলেন।

এক নতুন অভিজ্ঞতা হল আদহাম (রঃ)-এর। আরও গভীর সাধনায় ডুবে গেলেন। কেবল এবাদত বন্দেগী আর ক্রন্দন এই হলে তাঁর পথ চলার পদ্ধতি। একদিন নয়, একটানা চল্লিশ বছর ধরে তিনি এবাদত আর ক্রন্দন করতে করতে মক্কার পথে অগ্রসর হলেন। তাঁর আগমন বার্তা পেয়ে তাঁকে অভ্যর্থনা জানাবার জন্য এগিয়ে এলেন মক্কার অনেক দরবেশ। কিন্তু তিনি দল থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে একা একা পৌঁছে গেলেন মক্কার সন্নিকটে। আবার ওদিক থেকে দরবেশগণের এক সেবক তাঁকে জিজ্ঞেস করলেন, অদূরবর্তী কাফেলার কী ইব্রাহীম আদহাম আছেন?

ইব্রাহীম (রঃ) বললেন, ঐ অবাধ্য লোকটির কাছে তোমার কাজ কি? তাঁর কথায় রেগে গিয়ে সেবক তাঁকে এক প্রচণ্ড ঘুষি বসিয়ে দেয়। তুমি এমন এক সাধককে অবাধ্য বলছ? আসলে তুমিই অবাধ্য।

সূত্রঃ তাযকিরাতুল আউলিয়া

হযরত ইব্রাহীম আদহাম (রঃ) – পর্ব ৫  পড়তে এখানে ক্লিক করুন

পরবর্তী গল্প
হযরত ইব্রাহীম আদহাম (রঃ) – পর্ব ৫

পূর্ববর্তী গল্প
হযরত ইব্রাহীম আদহাম (রঃ) – পর্ব ৩

ক্যাটেগরী