হযরত ইদ্রীস (আঃ) এর কৌশলে বেহেস্তে গমনের ঘটনা-শেষ পর্ব

হযরত ইদ্রীস আঃ বললেন, আমি আপনার সাথে এই শর্তে ভ্রাতৃত্ব স্থাপন করতে পারি যে, আপনি আমাকে একবার মৃত্যুর অবস্থাটা উপভোগ করাবেন। তা হলে মৃত্যুর ভয়ে আমি বেশী বেশী করে মহান আল্লাহর ইবাদতে মগ্ন হতে পারতাম।

হযরত আজরাঈল আঃ  বললেন, আল্লাহর অনুমতি ছাড়া একাজ করা আমার পক্ষে সম্ভব নয়। যেহেতু এখন আপনার মৃত্যুর সময় উপস্থিত হয়নি।

হযরত ইদ্রীস আঃ বললেন, আপনি আল্লাহর নিকট হতে অনুমতি গ্রহণ করে নিন। তখন আজরাঈল আঃ আল্লাহ পাকের দরবারে অনুমতির প্রার্থনা করলেন। আল্লাহ পাক হযরত আজরাঈল আঃ এর প্রার্থনা কবুল করলেন। হযরত ইদ্রীস আঃ এর মৃত্যু হওয়ার পরই আজরাঈল আঃ তাঁকে আবার জীবিত করার জন্য আল্লাহ পাকের দরবারে প্রার্থনা করলেন এবং হযরত ইদ্রীস আঃ কে জীবিত করে দিলেন।

অতঃপর হযরত আজরাঈল আঃ হযরত ইদ্রীস আঃ কে জিজ্ঞেস করলেন, ভাই ইদ্রীস আঃ বলুন তো জান কবজের অবস্থাটা আপনার নিকট কিরুপ মনে হয়েছিল?

হযরত ইদ্রীস আঃ জবাবে বললেন, ভাই আজরাঈল কোন জীবিত প্রাণীর শরীরের চামড়া মাথা হতে পা পর্যন্ত টেনে খসিয়ে ফেললে প্রাণীটির যেরূপ কষ্ট হয় আমার সেরূপ কষ্ট অনুভূত হয়েছিল।

ফেরেস্তা আজরাঈল বললেন, ভাই ইদ্রীস আঃ আমি আজ পর্যন্ত যত জান কবজ করেছি, এত সহজে কারও জান কবজ করিনি। আপনার যাতে সামান্য কষ্ট হয়, আমি সেদিকে খুবই লক্ষ্য রেখেছিলাম।

অতঃপর হযরত ইদ্রীস আঃ বললেন, ভাই আজরাঈল আমার দোযখ দেখার খুবই সখ জেগেছে। যদি আপনি আমাকে একবার দোযখ দেখাতেন তবে দোযখের ভয়ে আমি বেশী বেশী আল্লাহর এবাদত বন্দেগীতে মনোযোগী হতে পারতাম।

হযরত ইদ্রীস আঃ এর প্রস্তাব মঞ্জুর করে হযরত আজরাঈল আঃ তাঁকে দোযখের দরজা পর্যন্ত নিয়ে গেলেন। হযরত ইদ্রীস আঃ দোযখ দেখার পর বললেন, ভাই আজরাঈল আঃ আমার মনে বেহেশত দেখারও অত্যন্ত আগ্রহ জেগেছে। যদি আপনি আমার এ সাধটি পূরণ করতেন তবে আমি আপনার নিকট চির কৃতজ্ঞ থাকতাম।

হযরত আজরাঈল আঃ বললেন, যদি আপনি আমার নিকট ওয়াদাবদ্ধ হন যে, বেহেশত দেখেই আমার নিকট ফিরে আসবেন, তবে আপনাকে বেহেশত দেখাতে পারি। হযরত ইদ্রীস আঃ তাতে রাজী হলে আজরাঈল আঃ তাঁকে বেহেশতের দরজায় পৌঁছে দিলেন। হযরত ইদ্রীস আঃ বেহেশতের দরজায় তাঁর নিজের জুতা খুলে রেখে বেহেশতের ভীতরে প্রবেশ করে কিছুক্ষণ ঘুরাফেরা করলেন। তারপর ফিরে এসে নিজের ওয়াদা রক্ষা করলেন। কিন্তু দরজায় এসেই জুতা পায় দিয়ে এক দৌড়ে বেহেশতের মধ্যে ঢুকে পড়লেন।

হযরত  আজরাঈল আঃ হযরত ইদ্রীস আঃ কে ডেকে বললেন, ভাই হযরত ইদ্রীস আঃ আপনি আবার বেহেশতে ঢুকলেন কেন? তাড়াতাড়ি চলে আসুন। আমি আপনাকে পৃথিবীতে পৌঁছে দিয়ে আমার কাজে রত হব।

হযরত ইদ্রীস আঃ বেহেশতের মধ্য হতে জবাব দিলেন ভাই আজরাঈল আঃ আল্লাহ পাক এরশাদ করেছেন, প্রত্যেক প্রাণীই একবার মৃত্যুবরণ করবে এবং একবার দোযখ না দেখে কেউই বেহেশতে প্রবেশ করতে পারবে না। আমি তো একবার মৃত্যুর স্বাধ আস্বাদন করলাম এবং দোযখও দর্শন করলাম। তারপর বেহেশত হতে বের হয়ে আপনার সাথে আমার ওয়াদাও পালন করলাম। অতএব, এখন আর আমি বেহেশত হতে বের হব না। আপনি এবার আপনার কাজে চলে যেতে পারেন। হযরত আজরাঈল আঃ হযরত ইদ্রীস আঃ এর কথা শুনে কর্তব্য স্থির করতে না পেরে দাঁড়িয়ে রইলেন।

এমতাবস্থায় আল্লাহ পাক আজরাঈল আঃ কে লক্ষ্য করে বললেন, হে আজরাঈল! ইদ্রীস্কে বেহেশতেই থাকতে দাও। তাঁর অদৃষ্টে আমি এরূপ ঘটনাই লিপিবদ্ধ করে রেখেছিলাম। অতঃপর হযরত ইদ্রীস আঃ মহা সুখে বেহেশতে বসবাস করতে লাগলেন। কিন্তু এদিকে তাঁর পরিবারবর্গ তাঁর বিচ্ছেদে কেঁদে কেঁদে দিন কাটাতে লাগল।

হযরত ইদ্রীস (আঃ) এর কৌশলে বেহেস্তে গমনের ঘটনা প্রথম পর্ব পড়তে এখানে ক্লিক করুন

আরো পড়তে পারেন

দুঃখিত, কপি করবেন না।