হযরত আহমদ খাযরুইয়া বলখী (রঃ) – পর্ব ২ | আমার কথা
×

 

 

হযরত আহমদ খাযরুইয়া বলখী (রঃ) – পর্ব ২

coSam ১১৯


হযরত আহমদ খাযরুইয়া বলখী (রঃ) – পর্ব ১ পড়তে এখানে ক্লিক করুন

একবার হজ্জে যাবার সময় হযরত আহমদের (রঃ) পায়ে কাঁটা বিদ্ধ হয়। পাছে নির্ভরতার নিষ্ঠা নষ্ঠ হয়, সেই জন্য তিনি সেটি তুলে ফেললেন না। কাঁটাবিদ্ধ পা নিয়ে চলতে গিয়ে তাঁর পা ফুলে ওঠল। প্রচন্ড যন্ত্রণা নিয়ে খোড়াতে খোড়াতে তিনি মক্কা শরীফে গিয়ে হজ্জ সমাধা করলেন। ফেরার সময় দেখা গেল, ক্ষতস্থান থেকে পুঁজ গড়িয়ে পড়ছে। অবস্থা দেখে সঙ্গীরা কাঁটাটি তুলে ফেললেন। আর তিনি পৌঁছালেন হযরত বায়েজী (রঃ)-এর দরবারে। তখনও রয়েছে দারুণ ব্যাথা। বায়েজীদ (রঃ) হালকা হাসি হেসে বললেন, তোমার পায়ে যে কাঁটা ফুটেছিল তার কি করলে? হযরত আহমদ (রঃ) বললেন, হুযুর! আমার ইচ্ছা অনিচ্ছা সবকিছু ছেড়ে দিয়েছি আল্লাহর ওপরে। এবার রাগে ফেটে গেলেন হযরত বায়েজীদ (রঃ)। বললেন, তোমার আবার ইচ্ছা-অনিচ্ছার প্রশ্ন কিসের? এটা শেরেক ছাড়া আর কিছু নয়।

এক রাতে চোর এল হযরত আহমদ খাযরুইয়ার ঘরে। কিন্তু কিছু না পেয়ে হতাশ হয়ে সে যখন চলে যাচ্ছে, হযরত আহমদ (রঃ) বললেন, তুমি কুয়া থেকে পানি তুলে ওযু বানিয়ে আমার সঙ্গে নামায আদায় কর। সকালে দেখা যাবে কী দিয়ে তোমাকে বিদায় দেওয়া যায়। তাঁর কথায় রাজি হয়ে চোরটি সত্যিই তাঁর সঙ্গে সারারাত নামায পড়ল। আর ভোর বেলায় এক ধনী লোক হযরত আহমদ (রঃ)-কে একশো দীনার নজরানা দিলেন। তিনি সেগুলো চোরকেই দিয়ে দিলেন। বললেন, তুমি সারারাত আমার সঙ্গে নামায পড়েছ। এগুলো তারই পুরষ্কার।

এবার চোরের মনে ভাবান্তর সৃষ্টি হল। যিনি একটি মাত্র রাতের এবাদতের বিনিময়ে এমন অনুগ্রহ করেন, সেই মহিমাময় প্রভুকে ছেড়ে আমি এতদিন কোথায় ছিলাম। সে হযরতের পায়ের ওপর লুটিয়ে পড়ে। টাকা নয়, দয়া করে আমাকে সৎ পাথে পরিচালিত করুন। হযরত আহমদ (রঃ) তাঁর নবজীবন দান করলেন।

আর একটি মজার ঘটনা। এক গরীব লোক সংসার চালাবার জন্য তাঁর কাছে জীবিকানির্বাহের কিছু উপায় প্রার্থনা করে। তিনি তাঁকে বললেন, বৈধ-অবৈধ টাকা রোজগারের যতগুলো ব্যবসা আছে, এক-একটি কাগজের টুকরায় তার নাম লেখে একটা পাত্রে রাখ। সে তাই করল। তখন তিনি বললেন, এবার যেকোন এক টুকরা কাগজ তুলে দেখ, তাতে যে ব্যবসার নাম লেখা থাকবে, তুমি তাই করবে।

লটারিতে ডাকাতির নাম লেখা কাগজ খন্ড ওঠে এল। তিনি এবারও জোর দিয়ে বললেন, তুমি তাহলে ডাকাতিই শুরু করে দাও। লোকটি মহাফাঁপরে পড়ে গেল। ডাকাতি করতে মন সায় দিল না। কিন্তু শেষ পর্যন্ত হযরত খাযরুইয়ার (রঃ) কথায় ডাকাতিই করবে বলে সিদ্ধান্ত নিল।

এক ডাকাত দলের সর্দার এই শর্তে তাকে দলে নিল যে, সে যখন যা আদেশ করবে, তৎক্ষণাৎ তা পালন করতে হবে।

সূত্রঃ তাযকিরাতুল আউলিয়া

হযরত আহমদ খাযরুইয়া বলখী (রঃ) – পর্ব ৩ পড়তে এখানে ক্লিক করুন

পরবর্তী গল্প
হযরত আহমদ খাযরুইয়া বলখী (রঃ) – পর্ব ৩

পূর্ববর্তী গল্প
হযরত আহমদ খাযরুইয়া বলখী (রঃ) – পর্ব ১

ক্যাটেগরী