রহমতের বায়না ধরা | আমার কথা
×

 

 

রহমতের বায়না ধরা

coSam ১১৭


হযরত আবূ আব্দুল্লাহ কারাশী (রঃ) বলেন, একদা আমি আবূ ইসহাক বিন তোরাইফের খেদমতে উপস্থিত ছিলাম। ঐ সময় সেখানে এক ব্যক্তি এসে জিজ্ঞেস করল, কোন কাজের ব্যপারে যদি কেউ এমন পণ করে যে, আমার উদ্দেশ্য সাধন না হলে আমি এ কাজটি করব না।

তবে এটা জায়েয হবে? তিনি উত্তরে দিলেন হ্যাঁ। জায়েজ হবে। হযরত আবদুল্লাহ কারাশী (রঃ) বলেন, এ মাসআলা শুনার সাথে সাথে আমিও মনে মনে পণ করলাম, যতক্ষণ আল্লাহ্‌ পাকের কোন কুদরত না দেখব ততক্ষন আমি আহার পানি গ্রহণ করব না। এভাবে সাতদিন অভুক্ত থাকার পর  হঠাৎ এক ব্যক্তি হাতে একটি থালা নিয়ে আমার সামনে উপস্থিত হল। অতঃপর আমাকে লক্ষ্য করে বলল, আজ এশা পর্যন্ত সবর কর, এই থালা হতে তুমি কিছু পাবে।

অজিফার লিপ্ত ছিলাম। এমন সময় দেয়াল ফেটে তার ভেতর হতে এক জান্নাতী হুর বের হয়ে আসল। তার হাতে একটি থালাতে মধু জাতীয় কিছু মিষ্টি দ্রব্য ছিল। সে নিকটে এসে আমাকে ঐ মিষ্টিদ্রব্য তিনবার খাওয়াল সাথে সাথে আমি জ্ঞান হারিয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়লাম। জ্ঞান ফিরে পাওয়ার পর দেখলাম হুর চলে গেছে। কিন্তু আমি কিছুতেই সেই হুরের চেহারা এবং আহার্য বস্তুর স্বাদ ভুলতে পারলাম না।

পরবর্তী গল্প
এক পাগলিণীর কাহিনী

পূর্ববর্তী গল্প
দানে ধন বাড়ে

ক্যাটেগরী