মক্কা বিজয়ের ঘটনা - ৯ম পর্ব | আমার কথা
×

 

 

মক্কা বিজয়ের ঘটনা - ৯ম পর্ব

coSam ২৫৬


মক্কা বিজয়ের ঘটনা -৮ম পর্ব পড়তে এখানে ক্লিক করুন

তাবারানী হইতে বর্ণিত রেওয়ায়াতে আছে যে, হযরত আবু লায়লা (রাঃ) বলিয়াছেন, (মক্কা বিজয়ের সফরে) আমরা নবী করীম রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের সঙ্গে ছিলাম। তিনি বলিলেন, আবু সুফিয়ান এখন আরাক নামক স্থানে ছিলাম। তিনি বলিলেন, আবু সুফিয়ান এখন আরাক নামক স্থানে অবস্থান করিতেছে। আমরা সেখানে যাইয়া তাহাকে ধরিয়া ফেলিলাম। মুসলমানগণ তাহাকে তলোয়ার দ্বারা ঘিরিয়া রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের নিকট লইয়া আসিল। রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম তাহাকে বলিলেন, হে আবু সুফিয়ান, তোমার ভাল হউক!

আমি তোমাদের নিকট দুনিয়া ও আখেরাত (এর কল্যাণ) লইয়া আসিয়াছি, মুসলমান হইয়া যাও নিরাপদে থাকিবে। হযরত আব্বাস (রাঃ) ও আবু সুফিয়ানের মধ্যে বন্ধুত্ব ছিল। সুতরাং হযরত আব্বাস (রাঃ) রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের খেদমতে আরয করিলেন, ইয়া রাসূলাল্লাহ, আবু সুফিয়ান খ্যাতি প্রিয় লোক। অতএব রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম একজন ঘোষণাকারীকে মক্কায় প্রেরণ করিলেন। সে এই ঘোষণা করিতে লাগিল, যে ব্যক্তি নিজ ঘরের দ্বার বন্ধ করিয়া রাখিবে সে নিরাপদ থাকিবে, সে ব্যক্তি অস্ত্র সমর্পন করিবে সে নিরাপদ থাকিবে এবং যে আবু সুফিয়ানের ঘরে ঢুকিয়া পড়িবে সেও নিরাপদ থাকিবে।

অতঃপর নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম হযরত আব্বাস (রাঃ) কে তাহার সহিত প্রেরণ করিলেন। তাহারা উভয়ে গিরিপথের কিনারায় যাইয়া বসিলেন। বনু সুলাইম গোত্রের বাহিনী সম্মুখে অগ্রসর হইলে আবু সুফিয়ান হযরত আব্বাস (রাঃ) কে জিজ্ঞাসা করিলেন, হে আব্বাস! ইহারা কাহারা? হযরত আব্বাস (রাঃ) বলিলেন, ইহারা বনু সুলাইম। আবু সুফিয়ান বলিলেন, বনু সুলাইমের সহিত আমার কি সম্পর্ক! তারপর মুহাজিরীনদের এক জামাতের সহিত হযরত আলী ইবনে আবি তালিব (রাঃ) অগ্রসর হইলে আবু সুফিয়ান জিজ্ঞাসা করিলেন, যে আব্বাস! ইহারা কাহারা? হযরত আব্বাস (রাঃ) বলিলেন, মুহাজিরীনদের জামাতের সহিত আলী ইবনে আবি তালিব।

অতঃপর আনসারদের সহিত রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম অগ্রসর ইহলে আবু সুফিয়ান জিজ্ঞাসা করিলেন, হে আব্বাস, ইহারা কাহারা? হযরত আব্বাস (রাঃ) বলিলেন, ইহারা রক্তবর্ণ মৃত্যু। আনসারদের সহিত স্বয়ং রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম। আবু সুফিয়ান বলিলেন, আমি কিসরা ও কায়সারের রাজত্ব দেখিয়াছি, কিন্তু তোমার ভাতিজার রাজত্বের ন্যায় কখনও দেখি নাই। হযরত আব্বাস (রাঃ) বলিলেন, ইহা রাজত্ব নহে, নবুওয়াত। (তাবারানী)

হযরত ওরওয়া (রাঃ) বর্ণনা করিয়াছেন যে, অতঃপর রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম মুহাজিরীন ও আনসার, আসলাম, গিফার, জুহাইনা ও বনু সুলাইম গোত্রের সমন্বয়ে বার হাজারের এক বিশাল বাহিনী লইয়া রওয়ানা হইলেন। এই অশ্বারোহী বাহিনী এরূপ দ্রুত অগ্রসর হইল যে, তাহারা (মক্কার নিকটবর্তী) মাররায যাহরান নামক স্থান পর্যন্ত পৌছিয়া গেল। অথচ কোরাইশগণ জানিতেও পারিল না। বরং কোরাইশগণ ইতিপূর্বে হাকিম ইবনে হিযাম ও আবু সুফিয়ানকে রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের নিকট মদীনায় এই বলিয়া প্রেরণ করিয়াছিল যে, হয় আমাদের জন্য তাহার নিকট হইতে নিরাপত্তা লইয়া আসিবে, আর না হয় তাহার সহিত আমাদের যুদ্ধ ঘোষণা করিয়া আসিবে। অতপর আবু সুফিয়ান ও হাকিম ইবনে হিযাম এতদুদ্দেশ্যে রওয়ানা হইলে পথে বুদাইল ইবনে ওরকার সহিত তাহাদের দেখা হইল। উভয়ে বুদাইলকে সঙ্গে লইল। তাহারা মক্কা হইতে রওয়ানা হইয়া এশা পর্যন্ত আরাক নামক স্থানে পৌছিল।

মক্কা বিজয়ের ঘটনা - ১০ম পর্ব পড়তে এখানে ক্লিক করুন


পরবর্তী গল্প
মক্কা বিজয়ের ঘটনা - ১০ম পর্ব

পূর্ববর্তী গল্প
মক্কা বিজয়ের ঘটনা - ৮ম পর্ব

ক্যাটেগরী