ফেরাউনের পরিচয়

পূর্বেই বলা হয়েছে ফেরাউনের আসল নাম মাসআর বা কাবুস। মাসআর বা কাবুসের জন্মস্থান বখলে। সে ভাগ্যন্মেষনের তাগিদে ঘুরতে ঘুরতে বেউশাহমা নামক শহরে গিয়ে উপনিত হল। তথায় তার হামান নামক আরেকটি ভবঘুরে যুবকের সাথে সাক্ষাৎ হল। তাঁদের দুজনের চারিত্রিক ও ভাবধারা ও প্রকৃতির প্রায় একই ধরনের হওয়ায় পরষ্পরের মধ্যে বন্ধু সৃষ্টি হয়।

অতঃপর তার উভয় ভাগ্যন্বষনে মিসর রাজ্যে গিয়ে উপনীত হল। তারা একটি গ্রাম্য রাজপথ দিয়ে হাটছিল তখন ছিল খরবুজার মৌসুম। দুজনেই ক্ষুধার তাড়নায় কাতর হয়ে পড়েছিল কিন্তু তাঁদের কারও সাথেই আহারের কিছুই ছিল না। হঠাৎ রাস্তার পার্শ্বে একটি খরবুজা ক্ষেতের প্রতি তাঁদের দৃষ্টি পড়ল। ক্ষেতের গাছসমুহে বহু সুপক্ক খরবুজা শোভা পাচ্ছিল।

খরবুজা ক্ষেতের মালিক তখন ক্ষেতের মজুর দিয়ে কাজ করছিল। কাবুস ও হামান তাঁদের কাছে নিজের ক্ষুধার কথা বলে একটি খরবুজা খেতে চাইল। ক্ষেতের মালিক বলল, তোমরা সুস্থ সবল যুবক পুরুষ। চেয়ে খাচ্ছ কেন? কাজ করে খাওয়ার চেষ্টা কর। আমি কিছু খরবুজা দিচ্ছি। তা বাজারে গিয়ে বিক্রি করে দাও। তারপর একটি কেন, তোমাদের ইচ্ছা মত খরবুজা খেতে পারবে।

তাঁদের খুধা খুবই প্রবল ছিল। কাজেই কাবুস হামানকে ক্ষেতের মালিকের কাছে জামিনসরূপ রেখে নিজে কয়েকটি খরবুজা নিয়ে বাজারে গেল। অল্প সময়ের মধ্যেই তা বিক্রি করে এসে মালিকের নিকট মূল্য বুঝিয়ে দিল। মালিক খুব সন্তুষ্ট হয়ে তাঁদের দুজনকে দুটি সুপক্ক বড় খরবুজা খেতে দিল।

অতঃপর খেতের মালিক একাজে তাঁদের কে স্থায়ীভাবে নিয়োগ করতে চাইল। মালিকের প্রস্তাবটি ভাল হলেও কাবুসের কাজটি মোটেই পছন্দ হল না। তাই সে অসম্মিত জানিয়ে হামানকে নিয়ে সেখান হতে বিদায় হয়ে চলে এল।

আরো পড়তে পারেন

দুঃখিত, কপি করবেন না।