প্রেম চিরন্তন | আমার কথা
×

 

 

প্রেম চিরন্তন

coSam ২৭৩


রেজা ইবনে আমর আননাখয়ী বর্ণনা করেন, কুফা শহরে এক সুদর্শন আল্লাহ ওয়ালা যুবক ছিল। একবার সে এক সুন্দরী মেয়ের প্রেমে পড়ে একেবারেই দেওয়ানা হয়ে গেল। মেয়েটি ও তার প্রেমে পাগল পারা ছিল। যুবক মেয়ের পিতাকে বিয়ের প্রস্তাব দিলে পিতা জানাল, আমার মেয়ের ইতিপূর্বেই তার এক চাচাতো ভাইয়ের সাথে বিয়ে ঠিকঠিক হয়ে গেছে। এদিকে এ প্রেমিক-প্রেমিকা ভালবাসার তীব্র অনলে জ্বলে পুড়ে ভস্ম হচ্ছিল।

মেয়েটি এক দূত পাঠিয়ে যুবককে জানাল, প্রিয়! আমার অদর্শনে তোমার হৃদয়ের উপর দিয়ে ভালোবাসার ঝড়ো হাওয়া কি তীব্র তাণ্ডব সৃষ্টি করে চলেছে তা আমি জানতে পেরেছি। তুমিও হয়ত জেনেছ, তোমার বিবাহ বেদনায় এই অভাগিনী কতটা বে-কারার হয়ে তোমার অপেক্ষা করছে। তুমি বিনে আমার এ জীবন একেবারেই অর্থহীন। এ বিচ্ছেদ, এ বিরহ প্রেমের জ্বালা আমি আর সইতে পারছি না। তুমি যদি রাজি হও, তবে আমি সব কিছু ত্যাগ করে তোমার নিকট চলে আসতে চাই, তবে এ মুহুর্তে আমি যাবতীয় আয়োজন করে দিচ্ছি।

প্রেমিকার প্রস্তাবে জবাবে দূতের নিকট বলে পাঠাল, আমি উভয় প্রস্তাবের কোনটিতেই সম্মত নয়। আমার ভয় হচ্ছে, যদি এ ক্ষেত্রে আল্লাহ পাকের হুকুম অমান্য করা হয়, তবে তিনি আমাদেরকে কঠোর শাস্তি দেবেন। আমি ভয় করি ঐ আগুনকে যার দহন শক্তি কখনো হ্রাস পায় না এবং যার স্ফুলিঙ্গ কখনো নির্বাপিত হয় না।

দূতের মুখে যুবককে খবর শুনে মেয়েটি আশ্চার্যন্বিত হয়ে বলল, এমন সুদর্শন যুবক এ যুবা বয়সে প্রেমের সাগরে হাবুডুবু খেয়েও আল্লাহর বিধান অমান্য করছে না? আল্লাহর কসম, আল্লাহর ভয় সবার অন্তরেই এক হওয়া উচিৎ। অতঃপর সে সকল দুনিয়াদারী ত্যাগ করে একটি চট দেহে জড়িয়ে আল্লাহর দরবারে তওবা করে ইবাদতে লিপ্ত হয়ে গেল। কিন্তু ঐ যুবকের পবিত্র চেহারা সে কিছুতেই বিস্মৃত হতে পারল না। যুবকের ভালোবাসার দহনে তিলে তিলে নিঃশ্বেষ হয়ে অবশেষে সে মৃত্যুমুখে পতিত হল।

এদিকে প্রেমিকার ইন্তেকালের পর যুবকের দেহ-মন ক্রমেই ভেঙ্গে পড়তে লাগল। সে মাঝে মাঝে তার প্রেমিকার কবর যিয়ারত করত। একদিন সে স্বপ্নে তার প্রেমিকার ভাল অবস্থায় দেখতে পেয়ে জিজ্ঞেস করল, প্রিয়া তুমি কি অবস্থায় আছ? উত্তরে সে এ ছন্দটি পাঠ করল-

অর্থঃ হে বন্ধু! আমাদের ভালোবাসা এমন পবিত্র ছিল যা মানুষকে কল্যাণের দিকে আহবান করে। সে পুনরায় জিজ্ঞেস করল, তুমি এখন কোথায় আছ? উত্তরে সে বলল।

অর্থঃ আমি জান্নাতে হুরদের ঐ আয়েশ ও নেয়ামতে আছি যা কখনো বিনাশ হবার নয়। যুবক বলল, আমি কিন্তু তোমাকে ভুলতে পারিনি। তুমিও আমাকে স্মরণ রেখ। একথা শুনে মেয়েটি বিচলিত হয়ে বলল, আল্লাহর শপথ! আমি ও তোমাকে ভুলতে পারিনি। আমি আল্লাহর নিকট দোয়া করছি তুমি ইবাদত-বন্দেগী করে আমাকে সাহায্য করতে থাক। একথা বলে সে প্রস্থান করতে উদ্যত হলে যুবক তাকে জিজ্ঞেস করল, আবার কবে তোমাকে দেখতে পাব? সে বলল শীঘ্রই তুমি আমার নিকট চলে আসবে। ঐ ঘটনার সাতদিন পরই যুবকের মৃত্যু হল।


পরবর্তী গল্প
একজন প্রকৃত শিক্ষকের গল্প

পূর্ববর্তী গল্প
শ্রেষ্ঠ আবেদ দর্শন

ক্যাটেগরী