পার্থিব বস্তুর দিকে তাকানোর পরিণতি | আমার কথা
×

 

 

পার্থিব বস্তুর দিকে তাকানোর পরিণতি

coSam ২১৭


এক যুবক আল্লাহ ওয়ালা বুজুর্গ আল্লাহর সাথে অঙ্গীকার করল যে, সে দুনিয়ার কোন বস্তুর দিকে ফিরে তাকাবে না। কিছু দিন পর যুবক বাজারে গেল। সেখানে গিয়ে সে এক দোকানীর কোমরে একটি সুন্দর বন্ধনী দেখে বার বার সেদিকে ফিরে তাকাতে লাগল, দোকানী লক্ষ্য করল যে, যুবক বার বার তার কোমর বন্ধনীর দিকে ফিরে ফিরে তাকাচ্ছে। কিছুক্ষণ পর সে তথা হতে সরে গেল। এ সময় দোকানী নিজের কোমরের দিকে তাকিয়ে দেখল, সেখানে কমর বন্ধনী নেই। সাথে সাথে সে দৌঁড়ে সেই যুবককে ঝাপটে ধরে বলল, তুমি কাজটি বড় ভাল করনি। যুবক বিস্মিত হয়ে জিজ্ঞেস করল, কি ব্যাপার? দোকানী ব্যঙ্গ করে বলল, আহা বাঁচাধন তুমি যেন তুমি যেন কিছুই জান না। তোমাকে তো আমরা একজন আল্লাহ ওয়ালা বলে মনে করতাম। অথচ তুমি কেমন করে আমার কোমর বন্ধ চুরি করে নিয়ে এলে। যুবক বলল, আল্লাহর শপথ! আমি তোমার কিছুই চুরি করিনি। ক্রমে মানুষের ভীড় বাড়তে লাগল। অবশেষে তাকে কাজীর দরবারে নিয়ে যাওয়া হল। কাজী বিস্তারিত ঘটনা শুনে তাকে বললেন, যুবক তুমি যা করেছ তা কোন ভাল মানুষের কাজ নয়। যুবক শপথ করে বলল, যুবকের দেহ তল্লাশী করা হোক। সাথে সাথে যুবকের কাপড় খুলে দেখা গেল তার কোমরে সেই বন্ধটি বেঁধে রাখা হয়েছে। যুবক তার কোমরে ওটা দেখামাত্র বিকট স্বরে এক চিৎকার দিয়ে অজ্ঞান হয়ে মাটিতে লুটে পড়ল।

এ সময় কাজী চোরকে চাবুক মারার নির্দেশ দিলেন। সাথে সাথে গায়েব হতে আওয়াজ এল, হে আল্লাহর বান্দা! এ আল্লাহর ওলীকে প্রহার করো না। তাকেও ঘটনার মাধ্যমে আদব শিক্ষা দেয়া হয়েছে মাত্র। সে চোর নয়। এ আওয়াজ শুনামাত্র কাজী জোরে এক চিৎকার দিয়ে অজ্ঞান হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়ল। চিৎকারের তীব্রতায় তার প্রাণ বের হয়ে যাওয়ার উপক্রম হল। এ সময় যুবকের জ্ঞান ফিরে এলে সে বলল, হে মাওলায়ে কারীম! আমি আমার অপরাধ জানতে পেরেছি, আমার অপরাধ স্বীকারও করছি, তুমি আমাকে ক্ষমা করে দাও। হে আল্লাহ ভুল ক্রমে আমার দ্বারা সে ত্রুটি প্রকাশ পেয়েছে ঐ বিষয়ে তুমি আমাকে পাকড়াও করো না। একথা বলেই সে ব্যাকুল হয়ে কাঁদতে লাগল। তার কান্না দেখে উপস্থিত সকলেই কাঁদতে লাগল।

অতঃপর যখন কাজী সাহেবের জ্ঞান ফিরে এল তখন তিনি সেই যুবকের হাত চুম্বন করে বললেন, হে বন্ধু! প্রকৃত পক্ষে তোমার কি হয়েছিল তা আমাকে খুলে বল! যুবক বলল, আমি আল্লাহ পাকের সাথে ওয়াদা করেছিলাম যে, আমি দুনিয়ার কোন সুন্দর বস্তুর প্রতি ফিরে তাকাবনা। কিন্তু আজ ঐ বাজারে এসে যখন সেই দোকানীর সাথে দেখা হল তখন তার কোমরের দিকে নজর পড়ল। এরপর কি ঘটেছে আমি কিছুই বলতে পারব না। আমি পায়ে হেটে বাজার অতিক্রম করছিলাম, এমন সময় ঐ দোকানী পেছন থেকে আমাকে জাপটিয়ে ধরল এবং গালমন্দ করতে লাগল, এবং আপনার নিকট পর্যন্ত আমাকে আনল। বাকী ঘটনা সম্পর্কে আপনি অবগত। অতঃপর যুবক এ কবিতাটি পাঠ করল-

অর্থাৎঃ হে আমার বিপদকালীন সময়ের সম্পদ। তুমি যদি না থাকতে তবে কে আমাকে ঐ ধ্বংসের হাত হতে রক্ষা করত? হে মঙ্গলকারী! ঐ ব্যক্তি ভাগ্যবান, যে নিজের দেশ ত্যাগ করে তোমার পথে রাত জাগরণ করে।


পরবর্তী গল্প
মূর্তির পেট থেকে জ্বীনের কথা বলা

পূর্ববর্তী গল্প
হযরত ইয়াহইয়া (আঃ) এর সাধনা

ক্যাটেগরী