নিকট আত্মীয়দিগকে ইসলামের দাওয়াত | আমার কথা
×

 

 

নিকট আত্মীয়দিগকে ইসলামের দাওয়াত

coSam ১৪৩


হযরত ইবনে আব্বাস (রাঃ) বলেন, আল্লাহ তায়ালা যখন এই আয়াত নাযিল করিলেন- অর্থঃ আপনার নিকট আত্মীয়দের ভয় প্রদর্শন করুন।

তখন নবী কারীম রাসূল (সাঃ) বাহির হইয়া মারওয়া পাহাড়ে আরোহণপূর্বক উচ্চকণ্ঠে বলিলেন, হে ফেহেরের বংশধরগণ! আওয়াজ শুনিয়া সকল কুরাইশ সমবেত হইল। আবু লাহাব ইবনে আবদুল মুত্তালিব বলিল, এই যে ফেহেরের বংশধরগণ আপনার নিকট উপস্থিত হইয়াছে। আপনি কি বলিবেন, বলুন। নবী কারীম (সাঃ) বলিলেন, হে গালিবের সন্তানগণ! ইহা শুনিয়া ফেহেরের বংশ হইতে মুহারিব ও হারিসের সন্তানগণ চলিয়া গেল। তিনি বলিলেন, হে লুআই ইবনে গালিবের সন্তানগণ! ইহা শুনিয়া বনু তাইমিল আদরাম ইবনে গালিবগণ চলিয়া গেল। তিনি বলিলেন, হে কাব ইবনে লুআই-এর সন্তানগণ! ইহা শুনিয়া বনু আমের ইবনে লুআইগণ চলিয়া গেল। তিনি বলিলেন, হে মুরারাহ ইবনে কাব এর সন্তানগণ! ইহা শুনিয়া বনু আদি ইবনে কাব, বনু সাহম ও বনু জুমাহ ইবনে আমর ইবনে হুসাইন ইবনে কাব ইবনে লুআইগণ চলিয়া গেল। তিনি বলিলেন, হে কেলাব ইবনে মুররাহ এর সন্তানগণ! ইহা শুনিয়া বনু মাখযুম ইবনে ইয়াকযাহ ইবনে মুররাহ ও বনু তাইম ইবনে মুররাহগণ চলিয়া গেল। তিনি বলিলেন, হে কুসাই এর সন্তানগণ! ইহা শুনিয়া বনু যোহরা ইবনে কেলাবগণ চলিয়া গেল। তিনি বলিলেন, হে আবদে মানাফের সন্তানগণ! ইহা শুনিয়া বনু আবদে দার ইবনে কুসাই, বনু আসাদ ইবনে আব্দিল ওযযা ইবনে কুসাই ও বনু আব্দ ইবনে কুসাইগণ চলিয়া গেল। আবু লাহাব বলিল, এই যে আব্দে মানাফের সন্তানগণ আপনার নিকট উপস্থিত, কি বলিবেন, বলুন। রাসূল (সাঃ) বলিলেন, আল্লা তায়ালা আমাকে হুকুম করিয়াছেন, যেন আমি আমার নিকট আত্মীয়দের ভয় প্রদর্শন করি। আর তোমরা কুরাইশের মধ্য হইতে আমার সর্বাপেক্ষা নিকট আত্মীয়। দুনিয়া ও আখেরাতে আল্লাহর নিকট আমি তোমাদের জন্য কিছুই করিতে পারিব না যতক্ষণ না তোমরা লা-ইলাহা ইল্লাল্লাহ স্বীকার করিয়া লইবে। তোমরা যদি এই কালেমা স্বীকার করিয়া লও তবে আমি তোমাদের পক্ষে তোমাদের রবের নিকট সাক্ষ্য দিতে পারিব এবং সমগ্র আরব তোমাদের অনুগত হইবে, সমগ্র অনারব তোমাদের সামনে নতিস্বীকার করিবে।

আবু লাহাব বলিল, (নাউযুবিল্লাহ) ধ্বংস হউক তোমার। এইজন্যই কি আমাদিগকে ডাকিয়াছে? এই ঘটনার পরিপেক্ষিতে আল্লাহ তায়ালা তাব্বাত ইয়াদা সূরা নাযিল করিলেন। আল্লাহ তায়ালা বলিতেছেন, আবু লাহাবের হস্তদ্বয় ধ্বংস হইয়াছে। (কানয)

হযরত ইবনে আব্বাস (রাঃ) হইতে অপর এক রেওয়াতে বর্ণিত আছে যে, আল্লাহ তায়ালা যখন এই আয়াত নাযিল করিলেন- তখন নবী কারীম (সাঃ) আসিয়া সাফা পাহাড়ে চড়িলেন এবং উচ্চস্বরে আওয়াজ দিলেন-  অর্থাৎ, হে লোকসকল, ভোর হইতেই শত্রু আক্রমণ করিয়া বসিবে। সুতরাং এখানে সমবেত হও। অতএব সকলেই সমবেত হইল। কেহ তো নিজেই উপস্থিত হইল, আর যে নিজে আসিতে পারিল না সে তাহার প্রতিনিধি পাঠাইল। রাসূল (সাঃ) বলিলেন, হে আবদুল মুত্তালিবের সন্তানগণ! হে ফেহেরের সন্তানগণ! হে কাবের সন্তানগণ! তোমরা বল, আমি যদি তোমাদিগকে এই সংবাদ দেই যে, এই পাহাড়ের পাদদেশে এক অশ্বারোহী শত্রুবাহিনী তোমাদের উপর আক্রমণ করিতে চাহিতেছে। তবে কি তোমরা আমার কথা সত্য বলিয়া মনে করিবে? তাহারা বলিল, হ্যাঁ, আপনার কথাকে সত্য মনে করিব।

রাসূল (সাঃ) বলিলেন, আমি তোমাদিগকে আগত এক ভয়াবহ আযাবের ভয় প্রদর্শন করিতেছি। ইহা শুনিয়া আবু লাহাব বলিল, (নাউযুবিল্লাহ) ধ্বংস হউক তোমার সারাদিন। আমাদিগকে কি এইজন্য ডাকিয়াছ? এই পরিপ্রেক্ষিতে আল্লাহ তায়ালা সূরা লাহাব নাযিল করিলেন। (বিদায়াহ)  


পরবর্তী গল্প
হযরত আদি ইবনে হাতেম (রাঃ) কে দাওয়াত প্রদান – পর্ব ১

পূর্ববর্তী গল্প
হযরত আবুল কাশেম নসরবাদী (রঃ) – শেষ পর্ব

ক্যাটেগরী