নবী কারীম (সাঃ ) ও হযরত আবু বকর (রাঃ ) এর হিজরতের বিবরণ – পর্ব ২ | আমার কথা
×

 

 

নবী কারীম (সাঃ ) ও হযরত আবু বকর (রাঃ ) এর হিজরতের বিবরণ – পর্ব ২

coSam ৮৩


নবী কারীম (সাঃ ) ও হযরত আবু বকর (রাঃ ) এর হিজরতের বিবরণ – পর্ব ১ পড়তে এখানে ক্লিক করুন

মুশরিকগণ তালাশ করিতে করিতে সেই গুহার নিকটও পৌঁছিল যেখানে রাসূল (সাঃ) ও হযরত আবু বকর (রাঃ) অবস্থান করিতেছিলেন। এমনকি তাহারা সেই গুহার মুখেও পৌঁছিয়া গেল এবং রাসূল তাহাদের আওয়াজ শুনিতে পাইলেন। হযরত আবু বকর (রাঃ) সেই সময় অত্যন্ত ভীত হইলেন এবং ভয় ও বিষণ্ণতা তাঁহাকে ঘিরিয়া ধরিল। নবী কারীম (সাঃ) তখন তাঁহাকে বলিলেন- لَا تَحْزَنْ إِنَّ اللَّهَ مَعَنَا

অর্থঃ বিষণ্ণ হইও না, আল্লাহ আমাদের সঙ্গে আছেন। এবং তিনি তাহার জন্য দোয়া করিলেন, আল্লাহ তায়ালা তাহার (অন্তরের) উপর প্রশান্তি ঢালিয়া দিলেন। যেমন কোরআন মাজিদে আল্লাহ তায়ালা বলিয়াছেন- فَأَنزَلَ اللَّهُ سَكِينَتَهُ عَلَيْهِ وَأَيَّدَهُ بِجُنُودٍ لَّمْ تَرَوْهَا وَجَعَلَ كَلِمَةَ الَّذِينَ كَفَرُوا السُّفْلَىٰ ۗ وَكَلِمَةُ اللَّهِ هِيَ الْعُلْيَا ۗ وَاللَّهُ عَزِيزٌ حَكِيمٌ অর্থঃ অতঃপর আল্লাহ তায়ালা তাহার প্রতি স্বীয় সান্ত্বনা নাযিল করিলেন, এবং তাঁহার সাহায্য এমন বাহিনী পাঠাইলেন যাহা তোমরা দেখিতে পাও নাই। বস্তুতঃ আল্লাহ তায়ালা কাফেরদের কথা নীচু করিয়া দিলেন, আর আল্লাহর কথা সদা সমুন্নত এবং আল্লাহ পরাক্রমশালী, প্রজ্ঞাময়।

হযরত আবু বকর (রাঃ)এর কিছু দুধের বকরী ছিল, যাহা প্রত্যহ সন্ধ্যার সময় হযরত আবু বকর (রাঃ) ও মক্কায় তাহার পরিবারের নিকট হাজির হইত। রাসূল (সাঃ) ও আবু বকর (রাঃ) উহার দুধ পান করিতেন। হযরত আবু বকর (রাঃ)এর গোলাম হযরত আমের ইবনে ফুহাইরা (রাঃ) অত্যন্ত আমানতদার, বিশ্বস্ত ও খাঁটি মুসলমান ছিলেন। তিনি তাহাকে পারিশ্রমিকের বিনিময়ে একজন পথপ্রদর্শক ঠিক করিবার জন্য পাঠাইলেন।

হযরত আমের (রাঃ) বনু আব্দ ইবনে আদী এর ইবনে উরাইকিত নামক এক ব্যক্তিকে পারিশ্রমিকের বিনিময়ে এই কাজের জন্য ঠিক করিলেন। এই ব্যক্তি কোরাইশের বনু সাহম অর্থাৎ বনু আস ইবনে ওয়ায়েলের মিত্র ছিল এবং সে তখনও মুশরিক ছিল। পারিশ্রমিকের বিনময়ে লোকদের পথ দেখাইবার কাজ করিত। গুহায় অবস্থানের দিনগুলিতে সে আমাদের বাহগুলি লইয়া আত্মগোপন করিয়াছিল। হযরত আবদুল্লাহ ইবনে আবু বকর (রাঃ) মক্কার সমস্ত খবরাখবর লইয়া সন্ধ্যার সময় তাহাদের উভয়ের নিকট যাইতেন। হযরত আমের ইবনে ফুহাইরা (রাঃ) ও প্রত্যেক রাত্রিতে বকরি লইয়া তাহাদের নিকট যাইতেন এবং তাহারা দুধ দোহন করিয়া পান করিতেন, জবাই করিয়া গোশত খাইতেন। তারপর সকাল ভোরে ভোরে বকরি লইয়া হযরত আমের (রাঃ) অন্যান্য রাখালদের নিকট চলিয়া যাইতেন। কেহই জানিতে পারিত না।

সূত্রঃ হায়াতুস সাহাবা

নবী কারীম (সাঃ ) ও হযরত আবু বকর (রাঃ ) এর হিজরতের বিবরণ – পর্ব ৩ পড়তে এখানে ক্লিক করুন

পরবর্তী গল্প
নবী কারীম (সাঃ ) ও হযরত আবু বকর (রাঃ ) এর হিজরতের বিবরণ – পর্ব ৩

পূর্ববর্তী গল্প
নবী কারীম (সাঃ ) ও হযরত আবু বকর (রাঃ ) এর হিজরতের বিবরণ – পর্ব ১

ক্যাটেগরী