নবী করীম (সাঃ) এর ক্ষুধার কষ্ট সহ্য করা - শেষ পর্ব | আমার কথা
×

 

 

নবী করীম (সাঃ) এর ক্ষুধার কষ্ট সহ্য করা - শেষ পর্ব

coSam ১৬৯


নবী করীম (সাঃ) এর ক্ষুধার কষ্ট সহ্য করা - দ্বিতীয় পর্ব পড়তে এখানে ক্লিক করুন

অপর এক রেওয়াতে আছে যে, তিনি কখনও ভুনা বকরী চোখে দেখেন নাই। (তারগীব)

হযরত ইবনে আব্বাস (রাঃ) বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ও তাঁহার পরিবারবর্গের লোকেরা একাধারে করেক রাত্রি অনাহারে কাটাইয়া দিতেন। রাতের খাবার জুটিত না। আর তাহাদের রুটিও অধিকাংশ সময় যবেরই হইত।

অপর রেওয়াতে আছে যে, হযরত আবু হোরায়রা (রাঃ) একদল লোকের নিকট দিয়া যাইতেছিলেন। তাহাদের সম্মুখে ভুনা বকরী রাখা ছিল। তাহারা তাহাকে (খাইবার জন্য) ডাকিলে তিনি খাইতে অস্বীকার করিলেন এবং বলিলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম দুনিয়া হইতে বিদায় লইয়া গিয়াছেন অথচ তিনি যবের রুটি দ্বারাও কখনও পেট ভরিয়া খাইতে পান নাই। (তারগীব)

হযরত আনাস (রাঃ) বলেন, হযরত ফাতেমা (রাঃ) যবের রুটির একটি টুকরা নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলিলেন, গত তিন দিনের মধ্যে ইহাই প্রথম খাবার, যাহা তোমার পিতা খাইতেছে। তাবারানীর রেওয়াতে অতিরিক্ত ইহাও বর্ণির হইয়াছে যে, হযরত ফাতেমা (রাঃ) যবের রুটির টুকরা সামনে পেশ করিলে নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম জিজ্ঞাসা করিলেন, ইহা কি? হযরত ফাতেমা (রাঃ) বলিলেন, এই রুটি আমি তৈরি করিয়াছি। কিন্তু আমার একা খাইতে মনে চাহিল না। অতএব আপনার জন্য এই টুকরা আনিয়াছি। অতঃপর নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম উপরোক্ত কথা এরশাদ করিলেন।

হযরত আবু হোরায়রা (রাঃ) বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের নিকট গরম খাবার আনয়ন করা হইল। তিনি খাওয়ার পর বলিলেন, আল হামদুলিল্লাহ, এত এত দিন যাবত আমার পেটে গরম খাবার পড়ে নাই। (তারগীব)

হযরত সাহল ইবনে সা'দ (রাঃ) বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম নবুওয়াত প্রাপ্তি হইতে মউত পর্যন্ত কখনও ময়দা দেখেন নাই। হযরত সাহল (রাঃ) কে জিজ্ঞাসা করা হইল যে, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের যুগে আপনাদের নিকট কি চালুনি ছিল? তিনি বলিলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম নবুওয়াত প্রাপ্তি হইতে মউত পর্যন্ত চালুনি দেখেন নাই। জিজ্ঞাসা করা হইল, আপনারা যবের আটা চালুনি ব্যতীত কিরূপে খাইতেন? তিনি বলিলেন, আমরা যব পিষিবার পর উহাতে ফুঁ মারিতাম, যাহা উড়িয়া যাইবার যাইত। বাকি অংশ পানি দ্বারা মথিয়া লইতাম। (তারগীব)

হযরত আয়েশা (রাঃ) বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের দস্তরখানে কমবেশী যবের রুটি কিছুই অবশিষ্ট থাকিত না।

অপর এক রেওয়াতে আছে যে, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের দস্তরখান কখনও তাঁহার সম্মুখ হইতে এমন উঠান হয় নাই যে, উহাতে কিছু উদ্বৃত্ত খাবার রহিয়াছে। (তারগীব)

সূত্রঃ হায়াতুস সাহাবা

নবী করীম (সাঃ) এর ক্ষুধার কষ্ট সহ্য করা - প্রথম পর্ব পড়তে এখানে ক্লিক করুন


পরবর্তী গল্প
আল্লাহর প্রতি দাওয়াতের পথে যখম ও রোগ--ব্যধি সহ্য করা

পূর্ববর্তী গল্প
নবী করীম (সাঃ) এর ক্ষুধার কষ্ট সহ্য করা - পর্ব ২

ক্যাটেগরী