দাওয়াতের উদ্দেশ্যে সাহাবা (রাঃ) কর্তৃক একেকজন কিংবা জামাত প্রেরণ | আমার কথা
×

 

 

দাওয়াতের উদ্দেশ্যে সাহাবা (রাঃ) কর্তৃক একেকজন কিংবা জামাত প্রেরণ

coSam ৩৭৭


উমাইয়া বংশের হযরত হেশাম ইবনে আস (রাঃ) বলেন, আমাকেও আমার একজন সঙ্গীকে রোমের বাদশাহ হেরাকলের নিকট ইসলামের দাওয়াত প্রদানের উদ্দেশ্যে প্রেরণ করা হইয়াছিল। আমরা উভয়ে রওয়ানা হইয়া গুতাহ অর্থাৎ দামেস্কে পৌঁছিলাম। সেখানে জাবালা ইবনে আইহাম দেখিলাম, সে সিংহাসন বসিয়া আছে। সে আমাদের সহিত কথা বলিবার জন্য একজন দূত প্রেরণ করিল। আমরা বলিলাম, খোদার কসম, আমরা দূতের সহিত কথা বলিব না।

আমরা তো স্বয়ং বাদশাহের নিকট প্রেরিত হইয়াছি। যদি অনুমতি পাই তবে তাহার সহিত কথা বলিব, অন্যথা আমরা দূতের সহিত কথা বলিব না। দূত আসিয়া তাহাকে এই সংবাদ জানাইলেন সে আমাদিগকে অনুমতি প্রদান করিল এবং বলিল, বল, কি বলিব। অতএব হযরত হেশাম ইবনে আস (রাঃ) তাহার সহিত কথা বলিলেন এবং তাহাকে ইসলামের প্রতি দাওয়াত দিলেন। জাবালা কালো পোশাক পরিহিত ছিল।

হযরত হেশাম (রাঃ) এই কালো পোশাক পরিধানের কারণ জিজ্ঞাসা করিলে সে বলিল, এই কালো পোশাক পরিধান করিয়া আমি শপথ করিয়াছি যে তোমাদিগকে সিরিয়া হইতে বহিষ্কার না করা পর্যন্ত আমি উহা পরিবর্তন করিব না। হযরত হেশাম (রাঃ) বলেন, আমরা বলিলাম, খোদার কসম, তোমার এই দরবার যেখানে তুমি বসিয়া আছ, আমরা উহা তোমার নিকট হইতে কাড়িয়া লইব এবং ইনশাআল্লাহ আমরা তোমার বড় বাদশাহ (অর্থাৎ হেরাকল) এর রাজ্যে (রোম) ও কাড়িয়া লইব। আমাদের নবী হযরত মুহাম্মাদ (সাঃ) আমাদিগকে এই কথা বলিয়া গিয়াছেন।

জাবালা বলিল, তোমরা সেইরকম লোক নও, বরং তাহারা এমন কওম হইবে যাহারা দিনের বেলায় রোজা রাখিবে এবং রাত্রিবেলায় এবাদত করিবে। অতঃপর সম্পূর্ণ হাদিস উল্লেখ করিয়াছেন, যাহার বর্ণনা গায়েবী মদদের অধ্যায় আসিতেছে।

মূসা ইবনে ওকবা কুরাইশী (রহঃ) হইতে অপর এক রেওয়াতে বর্ণিত হইয়াছে যে, হযরত হেশাম ইবনে আস (রাঃ), হযরত নুআঈম ইবনে আবদুল্লাহ (রাঃ) ও অপর এক সাহাবীকে যাহার নাম বর্ণনাকারী উল্লেখ করিয়াছিলেন, হযরত আবু বকর (রাঃ) এর যুগে রোমের বাদশাহের নিকট প্রেরণ করা হইয়াছিল। হযরত হেশাম (রাঃ) বলেন, আমরা গুতায় জাবালা ইবনে আইহামের নিকট গেলাম। তাহার পরিধেয় পোশাক ও তাহার আশেপাশে সকল বস্তু কালো রঙের ছিল। সে

বলিল, হে হেশাম, বল, হযরত হেশাম (রাঃ) তাহার সহিত কথা বলিলেন, এবং তাহাকে আল্লাহ তায়ালার প্রতি দাওয়াত দিলেন।

সূত্রঃ হায়াতুস সাহাবা


পরবর্তী গল্প
হযরত যিল জাওশান যিবাবী (রাঃ) কে দাওয়াত প্রদান

পূর্ববর্তী গল্প
যিয়াদ ইবনে হারেস (রাঃ) এর নিজ কওমের প্রতি পত্র – শেষ পর্ব

ক্যাটেগরী