তায়েফের হৃদয় বিদারক ঘটনা - ২য় পর্ব | আমার কথা
×

 

 

তায়েফের হৃদয় বিদারক ঘটনা - ২য় পর্ব

coSam ৫১৮


তায়েফের হৃদয় বিদারক ঘটনা - ১ম পর্ব পড়তে এখানে ক্লিক করুন

অপরজন বলিল, খোদার কসম, আমি আপনার সহিত এই মজলিসের পর কখনও একটি কথাও বলিব না। কারণ আপনি যদি সত্যই রাসূল (সাঃ) থাকেন তবে আপনার পদমর্যাদা এত ঊর্ধ্বে যে, আমি আপনার সহিত কথা বলিবার যোগ্যতাই রাখি না। তৃতীয়জন বলিল, আল্লাহ তায়ালা আর কাহাকেও রাসূল বানাইতে পারিলেন না? (আপনিই ছিলেন একমাত্র রাসূল হইবার জন্য?) তাহারা রাসূল (সাঃ)-এর কথাগুলি গোত্রের মধ্যে প্রচার করিয়া দিল।

গোত্রের লোকেরা সমবেত হইয়া রাসূল (সাঃ)-এর সহিত বিদ্রূপ করিতে আরম্ভ করিল। তাহারা পথের দুই পার্শ্বে হাতে পাথর লইয়া সারিবদ্ধ হইয়া বসিয়া গেল এবং প্রতি পদক্ষেপে তাঁহার পায়ের উপর নিক্ষেপ করিতে লাগিল। সেই সঙ্গে তাহারা ঠাট্টা বিদ্রূপও করিতেছিলেন। রাসূল (সাঃ) যখন রেহাই লাভ করিলেন তখন রক্তাক্ত পায়ে তাহাদের একটি বাগানে আসিয়া উঠিলেন। একটি আঙ্গুর গাছের গোড়ায় আসিয়া উহার ছায়াতে বসিলেন।

যন্ত্রণাকাতর পা মুবারক হইতে রক্ত গড়াইয়া পড়িতেছিল। এমন সময় বাগানের ভিতর ওতবা ইবনে রাবিআহ ও শাইবা ইবনে রাবিআহকে দেখিতে পাইলেন। কিন্তু আল্লাহ ও রাসূলের সহিত তাহাদের শত্রুতার কথা নিদারুণ কষ্ট সত্ত্বেও তাহাদের নিকট যাওয়া পছন্দ করিলেন না। ওতবা ও শাইবা তাহাদের নিনওয়াবাসী খৃষ্টান গোলাম আদ্দাসের হাতে তাহার নিকট একটি আঙ্গুরের ছড়া দিয়া পাঠাইল। আদ্দাস উহা আনিয়া তাঁহার সম্মুখে রাখিলে তিনি (খাওয়ার প্রথমে) বিসমিল্লাহির বলিলেন। ইহাতে আদ্দাস বিস্ময় প্রকাশ করিল। রাসূল (সাঃ) জিজ্ঞাসা করিলেন, হে আদ্দাস, তুমি কোন দেশের অধিবাসী? আদ্দাস বলিল, আমি নিনওয়ার অধিবাসী। নবী কারীম (সাঃ) বলিলেন, সেই নেক ব্যক্তি ইউনুস ইবনে মাত্তার শহরের অধিবাসী?

আদ্দাস জিজ্ঞাসা করিল, ইউনুস ইবনে মাত্তা সম্পর্কে আপনি কি জানেন? রাসূল (সাঃ) ইউনুস (আঃ) সম্পর্কে যাহা জানিতেন বলিলেন। রাসূল (সাঃ) অভ্যাস মুবারক এই ছিল যে, আল্লাহর পয়গম পৌঁছিবার ব্যাপারে কাহাকেও তুচ্ছ মনে করিতেন না। (অর্থাৎ ছোট বড় সকলকেই

দাওয়াত প্রদান করিতেন।) আদ্দাস বলিল, ইয়া রাসূলুল্লাহ, ইউনুস ইবনে মাত্তা (আঃ) সম্পর্কে আমাকে বলুন। রাসূল (সাঃ) ইউনুস ইবনে মাত্তা (আঃ) সম্পর্কে তাঁহার উপর যাহা কিছু ওহী নাযিল হইয়াছিল তাহা আদ্দাসকে শুনাইলেন। শুনিয়া আদ্দাস তাঁহার সম্মুখে সিজদায় পড়িয়া গেল এবং তাঁহার রক্তাক্ত পদযুগল চুম্বন করিল। ওতবা ও তাহার ভাই শাইবা তাহাদের গোলামকে এইরূপ করিতে দেখিয়া হতবাক হইয়া গেল। গোলাম তাহাদের নিকট ফিরিয়া গেলে তাহারা বলিল, কি ব্যাপার, তুমি মুহাম্মাদ (সাঃ) কে সিজদা করিলে এবং তাঁহার পা চুম্বন করিলে? অথচ আমাদের কাহারো সঙ্গে তোমাকে এইরূপ করিতে তো কখনও দেখি নাই? আদ্দাস উত্তরে বলিল, ইনি একজন নেক ব্যক্তি। তিনি আমাকে আমাদের নিকট আল্লাহর প্রেরিত ইউনুস ইবনে মাত্তা নামক এক রাসূল সম্পর্কে এমন কিছু কথা শুনাইয়াছেন যাহা আমি পূর্ব হইতেই জানিতাম। তিনি আমাকে ইহাও বলিয়াছেন যে, তিনি আল্লাহর রাসূল। ওতবা ও শাইবা ইহা শুনিয়া হাসিয়া উঠিল এবং বলিল, সে যেন তোমাকে তোমার খৃষ্ট ধর্ম হইতে বিচ্যুত করিতে না পারে। লোকটি মানুষকে

ধোকা দিয়া থাকে (নাউযুবিল্লাহ) অতঃপর রাসূলুল্লাহ (সাঃ) মক্কায় ফিরিয়া আসিলেন। (আবু নুআঈম)

সূত্রঃ হায়াতুস সাহাবা

তায়েফের হৃদয় বিদারক ঘটনা - ৩য় পর্ব পড়তে এখানে ক্লিক করুন

পরবর্তী গল্প
তায়েফের হৃদয় বিদারক ঘটনা - ৩য় পর্ব

পূর্ববর্তী গল্প
তায়েফের হৃদয় বিদারক ঘটনা - ১ম পর্ব

ক্যাটেগরী