টিভি দেখার ভয়াবহ পরিণামo | আমার কথা
×

 

 

টিভি দেখার ভয়াবহ পরিণামo

coSam ১৬২


পবিত্র রমযান মাস। ইফতারের সামান্য পূর্বে মা তার মেয়েকে বললেন, ইফতারী তৈরিতে আমাকে একটু সাহায্য কর। মেয়ে বলল মা এখন টিভিতে একটি ভাল অনুষ্টান আছে তা দেখতে হবে। আমি অনুষ্টান আগে দেখে নিই তারপর কাজ করব।

একথা বলেই মেয়েটি টিভি দেখার জন্য টিভি রুমে চলে গেল। মায়ের জবরদস্তির ভয়ে সে ভেরত থেকে দরজা বন্ধ করে টিভি দেখতে থাকে। এদিকে মা তার মেয়েকে ডাকাডাকি কতে থাকে কিন্তু মেয়ে কোন জবাব দেয় না, বেশ দেরী হল। ঘরের অন্যান্যরা যথা সময় এসে ইফতার করল কিন্তু মেয়ে তো রুম থেকে বের হচ্ছে না। মা বাহির থেকে খুব জরে দরজায় কড়া নাড়াতে থাকেন কিন্তু কোন আওয়াজ নেই। মেয়ের কোন সাড়া শব্দ না পেয়ে মায়ের মনে ভয় হল। বিষয়টি মেয়ের পিতা ও ভাইদের গোচারুভূত করা হল। তারা দরজা ভেঙ্গে ভিতরে প্রবেশ করে দেখে মেয়ে উপুড় হয়ে পড়ে আছে। তার কাছে গিয়ে নাড়ানাড়া করে দেখল সে আর দুনিয়াতে নেই।

কিন্তু এখন দেখাদিল আরেক বিপদ। মেয়েটিকে তারা সবাই ধরাধরি করে মাটি থেকে উঠাতে চাইল কিন্তু লাশ কিছুতেই মাটি থেকে উঠাতে পারছে না। তারা যতই জোর করে উঠাতে চাইছে সে যেন ততই শক্তভাবে মাটির সাথে আকড়ে ধরে আছে। তারা সকলেই ক্লান্ত হয়ে গেল। এখন কি আর করা! তাদের একজন হঠাৎ করে টিভি সেটটি উঠাতেই লাশটিও টিভির সাথে সাথে উঠে যাচ্ছে। এখন টিভি সেটটি উঠালেই লাশটিও উঠে। অন্যথায় সে মাটির সাথে আকড়ে থাকে। শেষ ফলে তারা টিভির সঙ্গে লাশটিও উঠিয়ে উপর থেকে নিচে এনে গোছল দিয়ে কাফন জড়াল। এখন জানাযা পড়ার জন্য খাট উঠাতে চায় কিন্তু উঠে না। কিন্তু টিভি সেটটি উঠাতে খাটটি উঠল। এভাবে কোনমতে কবরের পাশে নিয়ে গেলে লাশ কবরের ভিতর রেখে দাফন করতে চাইলে লাশ কবর থেকে বাইরে চলে এল। শেষ ফলে টিভিসহ তাকে দাফন করা হল। (খতমে নবুয়্যাত- ৭ম খণ্ড)

পরবর্তী গল্প
একটি অবিস্মরণীয় ঘটনা

পূর্ববর্তী গল্প
রাজকন্যার কুপ্রস্তাব থেকে যুবকের আত্মরক্ষা

ক্যাটেগরী