খন্দক যুদ্ধের পূর্বাভাষ | আমার কথা
×

 

 

খন্দক যুদ্ধের পূর্বাভাষ

coSam ৪১



নতুন প্রচারিত ধর্ম ইসলামের প্রসারে সালমান ফারসীর অবদান ছিল বহুমুখি। পঞ্চম হিজরীতে বিশ্বনবী (সাঃ) খবর পেলেন যে, বিরাট অশ্বারোহী দল সহ ১০,০০০ যোদ্ধার এক সৈন্য বাহিনী মক্কা থেকে বহির্গত হয়েছে।

তাদের লক্ষ্য হল আল্লাহর জমিন থেকে মুসলিমদের নাম নিশানা একেবারে মুছে ফেলা।

মক্কার কুরাইশ বাহিনীর সঙ্গে যোগ দেবে খায়বারের ইয়াহুদীগণ। বনু আসাদ এবং বনু গাতফান গোত্রীয় আরবগণও তাদের সঙ্গে মজবুত এক এক্যবদ্ধ সামরিক সংহতি চুক্তিতে আবদ্ধ হয়েছে। এক সপ্তাহের মধ্যেই তারা মদীনা আক্রমণ করে বসবে।

এর মধ্যেই মুসলিমদের আত্মরক্ষার জন্য যতটুকু ব্যবস্থা করার তা করতে হবে। এ খবরে মুসলিমগণ ভীত, শংকিত এবং বিহ্বল হয়ে পড়লেন।

আল্লাহর রাসূল (সাঃ) তার অনুসারীদেরকে দৃঢ়, সংহত এবং ধৈর্যশীল হতে উদ্বুদ্ধ করলেন। এ গুরুতুপূর্ণ বিষয়টি আলোচনার জন্য একাধিক শুরা মাহফিল অনুষ্ঠিত হল। এ দুর্যোগ মোকাবেলায় সকলেই তাদের চিন্তা, চেতনা নিবদ্ধ করেন।

বহু ধরনের পরামর্শ, বুদ্ধি ও ধারণা সাহাবীদের থেকে আসতে লাগল।
সুত্রঃ ক্রিতদাস থেকে সাহাবী

পরবর্তী গল্প
বোকার সন্ধানে

পূর্ববর্তী গল্প
ইসলাম গ্রহণ ও মুক্তিপণ

ক্যাটেগরী