খতনার আহকাম | আমার কথা
×

 

 

খতনার আহকাম

coSam ২৭


খতনার আহকাম

* ছেলেদের খতনা (মুসলমানী ) করানো সুন্নাত। খতনা ইসলামের একটি বৈশিষ্ট্য, তাইএটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ সুন্নাত। 

* খতনা করানোর কোন বয়স নির্ধারিত নেই। বালেগ হওয়ার পূর্বেযে কোন বয়সে যে কোন সময় করে নিবে।

* যদি বালেগ হওয়ার পূর্বেকারও খতনা না হয়ে থাকে বা কোন অমুসলিম বালেগ হওয়ার পর মুসলমান হয় এবং পূর্বেতার খতনা না হয়ে থাকে , তাহলেও (বালেগ হওয়া সত্ত্বেও) খতনা করার হুকুম বলবৎ থাকবে , যদি তার মধ্যে খতনার কষ্ট সহ্য করার ক্ষমতা থাকে।   

* খতনা উপলক্ষে আড়ম্বর করা , দূর-দূরান্ত থেকে আত্মীয় - স্বজনকে ডেকে আনা এবং তাদেরও ছেলের জন্য কাপড় -চোপড় ও হাদিয়া তোহফা নিয়ে আসা- এটা সুন্নাত পরিপন্থী। (ইসলামী ফিকাহ ) গোপ , দাড়ির মাসায়েল

* পুরুষের জন্য দাড়ি রাখা ওয়াজিব এবং অন্ততঃ এক মুষ্ঠি লম্বা রাখা ওয়াজিব। দাড়ি মুন্ডানো বা এক মুঠের চেয়ে কম রেখে ছাঁটা বা উপড়ানো হারাম। এক মুঠের চেয়ে লম্বা হলে তা হেঁটে ফেলানো দোরস্ত আছে। এরূপ চতুর্দিক থেকে সমান করার জন্য কিছু কিছু হেঁটে ফেলা দোরস্ত আছে।

* দাড়ি এক মুঠের চেয়ে খুব বেশী লম্বা রাখা সুন্নাতের খেলাফ। 

* গোঁপ দুই দিক থেকে লম্বা করা জায়েয আছে কিন্তু যেন ঠোটের উপর পড়ে- এভাবে ছোট রাখা সুন্নাত।

 * গোপ মুণ্ডানো জায়েয কি-না এ ব্যাপারে মতভেদ রয়েছে। কোন কোন আলেম বিদআত বলেছেন। অতএব না মুণ্ডনো ভাল। গোপ হেঁটে এত ছোট করে রাখবে যেন মুণ্ডানোর ন্যায় হয়ে যায়, এরূপ করা উত্তম

* মহিলার গোঁপ দাড়ি হলে মুণ্ডানো জায়েয বরং দাড়ি হলে মুণ্ডিয়ে ফেলা মুস্তাহাব। কোনভাবে মূল থেকে তুলে ফেলতে পারলে আরও উত্তম।

* ভাল দেখানোর জন্য পাকা দাড়ি উপড়ে ফেলা নাজায়েয।

* গালের উপরের পশম দাড়ি নয়। এরূপ পশম মুণ্ডন করে রেখার ন্যায় বানানো জায়েয , তবে খেলাফে আওলা।

* হলকূমের পশম কামানো চাইনা , তবে হযরত ইমাম আবূ ইউসূফ ( রহঃ ) জায়েয বলেন।

* নীচের ঠোটের নিম্নের পশম (বাচ্চা দাড়ি কামানোকে ফকীহগণ বিদআত বলেছেন , অতএব তা কামানো চাইনা । (ছাফাইয়ে মোআমালাত )

* দাড়ির কলপ / খেযাব সম্পর্কিত মাসায়েল জানার জন্য দেখুন ৪৭৬ পৃষ্ঠা।

সূত্রঃ আহকামে যিন্দেগী

পরবর্তী গল্প
চুল ও শরীরের অন্যান্য পশমের মাসায়েল

পূর্ববর্তী গল্প
পুরুষের মাহরাম

ক্যাটেগরী