এক মহিলা বুজুর্গের প্রার্থনা | আমার কথা
×

 

 

এক মহিলা বুজুর্গের প্রার্থনা

coSam ২১৯


কোন একজন বুজুর্গ বলেন, একবার আমি বায়তুল মোকাদ্দাস হতে এক গ্রামের উদ্দেশ্যে যাত্রা করলাম। দীর্ঘ পথ অতিক্রমের পর নির্জন পথে হঠাৎ এক বৃদ্ধা মহিলার সাথে আমার সাক্ষাৎ হয়। বৃদ্ধার গায়ে ছিল একটি পশমী জুব্বা এবং একটি পশমী চাদর। আমি তাকে সালাম দিলাম। বৃদ্ধা সালামের জবাব দিয়ে আমাকে প্রশ্ন করলেন, হে যুবক! তুমি কোথায় যাত্রা করেছ? আমি গ্রামের নাম বললাম। তিনি আবার প্রশ্ন করলেন, তোমার নিবাস হতে ঐ গ্রামের দূরত্ব কত? আমি বললাম, প্রায় আঠার মাইল। তিনি বিস্মিত হয়ে বললেন সুবহানাল্লাহ! তুমি এত পথ অতিক্রম করে এসেছ? তুমি এত কষ্ট না করে ঐ গ্রামের মালিককে বলে দিলেই তো তিনি তোমার প্রয়োজন মিটিয়ে দিতেন। বৃদ্ধার কথার মর্ম বুঝতে না পেরে আমি বললাম, গ্রামের মালিকের সাথে তো আমার পরিচয় নেই। তিনি বিচলিত হয়ে জিজ্ঞেস করলেন, তোমাদের পরিচয় নষ্ট হওয়ার কারণ কি? এবার আমি তাঁর কথার মর্ম অনুধাবন করে কেঁদে ফেললাম। তিনি আমাকে জিজ্ঞেস করলেন, হে যুবক! তুমি আল্লাহকে ভালবাস? আমি হ্যাঁ বোধক জবাব দিলাম।

তিনি আবারো জিজ্ঞেস করলেন, তুমি কি সত্যিই আল্লাহকে ভালবাস? আমি বললাম, আল্লাহর কসম! আমি তাকে ভালবাসি। এবার তিনি বললেন, আল্লাহ পাক যখন তোমাকে স্বীয় মোহাব্বতের দরজায় পৌঁছিয়েছেন তখন তিনি তোমাকে কি গোপন ভেদ দান করেছেন বল। আমি তাঁর প্রশ্নের উত্তর দিতে অক্ষমতা প্রকাশ করলাম। তিনি মন্তব্য করলেন, সম্ভবত তুমি ভালবাসা গোপনকারীদের অন্তর্ভুক্ত। আমি তাঁর এই কথারও কোন জবাব দিতে পারলাম না। কিছুক্ষণ নীরবতার পর তিনি বললেন, আল্লাহ পাক স্বীয় হেকমত ও ভালবাসা অযোগ্য পাত্রে অর্পন করেন না। আমি বললাম, আল্লাহ পাক আপনার প্রতি সদয় হউন। আমার জন্য দোয়া করুন যেন আমার অন্তরকে তিনি স্বীয় ভালবাসা দ্বারা পূর্ণ করে দেন। তিনি স্বস্নেহে আমার মুখ মুছে দিলেন। আমি ব্যকুল হয়ে পুনরায় সে দোয়া চাইলে তিনি বললেন, বেটা! নিজের কাজে লেগে থাক। যদি আল্লাহ তায়ালার সন্তুষ্টির আশঙ্কা না হত, তবে তোমাকে বিস্ময়কর বস্তুসমূহ দেখাতাম। অতঃপর একটি দীর্ঘ শ্বাস ত্যাগ করে বললেন, আমার সেই বাসনা অপূর্ণই থেকে গেল।


পরবর্তী গল্প
আলোর পথে ফিরে আসা

পূর্ববর্তী গল্প
গায়েবী সংবাদ

ক্যাটেগরী