একটি চাটাই পরিধানকারীর উপদেশ | আমার কথা
×

 

 

একটি চাটাই পরিধানকারীর উপদেশ

coSam ৩১২


বর্ণিত আছে যে, দামেস্ক শহরে আবূ আবেদ রব্বিহী নামক এক ব্যক্তি ছিলেন। তিনি ছিলেন একজন সম্পদশালী। একদা লোকটি ভ্রমণে বের হলেন। অতঃপর এক ঝর্ণার পাশে এসে রাত হয়ে গেলে সেখানেই যাত্রা বিরতী করলেন। তিনি মাঠের এক প্রান্ত থেকে একটি আওয়াজ শুনতে পেলেন।

সে আওয়াজে অধিকাংশ শব্দই আল্লাহর প্রশংসা শুনা যাচ্ছিল। (ভ্রমণকারী) লোকটি বলছে আমি সে আওয়াজ লক্ষ্য করে আওয়াজকারীকে আবিষ্কার উদ্দেশ্যে বের হয়ে গেলাম। এমন সময় এক লোকের সন্ধান পেলাম লোকটি একটি চাটাই পরিধান করে  আছেন।

আমি তাকে সালাম করে জিজ্ঞেস করলাম, হে আল্লাহর  বান্দা! আপনি কে? লোকটি বলল, আমি একজন মুসলিম। আমি তাকে বললাম, আপনার এ অবস্থা কেন? লোকটি বলল, তার নিয়ামতের শোকরিয়া আদায় করা আমার জন্য ওয়াজিব।

আমি বললাম, আপনি চাটাই পরে আছেন, আপনার উপর আবার কি নিয়ামত আছে? লোকটি জবাব দিলেন, আল্লাহ তা'আলা আমাকে সৃষ্টি করেছেন, আমার জন্ম ভালভাবে হয়েছে এবং ইসলামে আমার জন্ম হয়েছে। আমার অঙ্গ প্রত্যঙ্গগুলো নিখুত বানিয়েছেন। ঐ ব্যক্তির চেয়ে কি বড় নিয়ামতে আর কে আছে যে, এ অবস্থায় সন্ধ্যা করে যেমন আমি আছি? আমি বললাম, আল্লাহ তা'আলা আপনার উপর রহম করুন। আমার একান্ত কামনা আপনি আমার সাথে আমার বাড়িতে যাবেন। লোকটি বলল, কেন যাব?

আমি বললাম, কিছু আহার করবে এবং আমি আপনাকে কিছু দান করব যা আপনার চাটাই পরিধান থেকে মুক্ত করবে। তিনি বললেন, এসবের আমার কোন প্রয়োজন নেই। তিনি আমার সাথে যেতে অস্বীকার করলে আমি চলে এলাম। এতে আমার নিকট আমারই কোন গুরুত্ব থাকল না। আমি বললাম, বাগদানে আমার পরে আর কোন ধনী লোক নেই। তারপরও আমি আরো চাই। অতঃপর আমি বললাম, হে আল্লাহ! আমি যে অবস্থায় আপনার কাছে তওবাহ করছি।

কিন্তু আমার ইচ্ছার কোন খবর হল না। রাতের শেষ প্রহরে লোকজন চলে যেতে  প্রস্তুত হতে লাগল এবং আমার বাহনও নিয়ে এলো। আমি আমার বাহনকে দামেস্কের দিকে ফিরিয়ে বললাম, আমি যদি ব্যবসা বাণিজ্যের দিকে যাই, তাহলে আমি আমার তওবাহতে সত্যবাদি রইলাম না। তারা আমাকে তাদের সাথে নিয়ে যাওয়ার জন্য আপ্রাণ চেষ্টা করল কিন্তু আমি তাদের সাথে যেতে অস্বীকার করলাম।

এ ঘটনা বর্ণনাকারী বলেন, এ ব্যক্তি যখন দামেস্কে ফিরে এল তখন তার হাত ধনস্পদের উপর রেখে এগুলো ছদকা করে দিল। এবং আল্লাহর রাস্তায় সেগুলো বিলিয়ে দিল। অতঃপর সে মৃত্যু পর্যন্ত ইবাদাতে মশগুল রইল মৃত্যুর সময় দাফন কাফনের সম্পদ ছাড়া আর কোন সম্পদ ছিল না।

পরবর্তী গল্প
শেখ মুহীউদ্দীন (রহঃ) এর ঘটনা

পূর্ববর্তী গল্প
সূরা ইয়াছিনের ফজিলতে সামান্য খাদ্য দ্রব্যে অসাধারণ বরকতের ঘটনা

ক্যাটেগরী