একজন মুসলিম যোদ্ধা দোজখী হবে | আমার কথা
×

 

 

একজন মুসলিম যোদ্ধা দোজখী হবে

coSam ২২৬


হযরত আবূ হোরায়রা (রাঃ) এর উদ্বৃতি দিয়ে বোখারী শরীফে বর্ণনা করা হয়েছে। হোনাইনের যুদ্ধে অংশকারীদের মধ্যে কিরামান নামে এক ব্যক্তি যে নিজেকে মুসলমান বলে দাবী করত; রাসূলুল্লাহ (সাঃ) তার সম্পর্কে বললেন সে দোজখী অথচ ঐ ব্যক্তি কাফেরদের সাথে অত্যন্ত বীরত্বের সাথে যুদ্ধ করতে করতে ক্ষত বিক্ষত হচ্ছিল। এক ব্যক্তি রাসূলে করীম (সাঃ) এর খেদমতে হাজির হয়ে আরজ করল, ইয়া রাসূলুল্লাহ! আপনি যাকে দোজখী বলেছিলেন সে কাফেরদের সাথে ভয়ানক যুদ্ধ করতে করতে আহত হয়ে গিয়েছে। সংবাদ শুনে রাসূলুল্লাহ (সাঃ) বললেন, অবশ্যই সে আহত হয়েছে।

কিছুক্ষণ পরই ঐ আহত ব্যক্তি আঘাতের যন্ত্রনা সহ্য করতে না পেরে আত্মহত্যা করে বসল। এতদা দর্শনে করেক ব্যক্তি দৌড় এসে নবী করীম (সাঃ) এর দরবারে উপস্থিত হয়ে আরজ করল ইয়া রাসূলাল্লাহ! আপনার ভবিষ্যদ্বানীটি সত্য প্রমানিত হয়েছে। আহত ব্যক্তিটি এ মাত্র আত্মহত্যা করেছে। ঘটনা শুনে আল্লাহ্‌র রাসূল (সাঃ) বলে উঠলেন-

الله اكبر اشهد اني عبد الله ورسوله

অনুবাদঃ আল্লাহ্‌ সর্ব শক্তিমান, আমি সাক্ষ্য দিচ্ছি যে, নিশ্চয়ই আমি আল্লাহ্‌র বান্দা এবং তার রাসূল।

মোট কথা, রাসূলে পাক (সাঃ) এর ভবিষ্যদ্বানীটি সত্য প্রমাণিত হয়েছে, আর কথিত মুসলিমযোদ্ধা কিরমান ছিল আসলে একজন মুনাফেক। (বুখারী)


পরবর্তী গল্প
রাফেজী সম্প্রদায় সম্পর্কে ভবিষ্যদ্বানী

পূর্ববর্তী গল্প
শাহাদাতের সুসংবাদ

ক্যাটেগরী