ইমাম হুসাইনের শাহাদাত সম্পর্কে ভবিষ্যদ্বানী | আমার কথা
×

 

 

ইমাম হুসাইনের শাহাদাত সম্পর্কে ভবিষ্যদ্বানী

coSam ৮৭


হযরত উম্মুল ফজল হতে বর্ণিত, তিনি বলেন, একদিন আমি একটি ভীতিপূর্ণ স্বপ্ন দেখে পেরেশান হলাম। অতঃপর রাসূল (সাঃ) এর খেদমতে উপস্থিত হয়ে আরজ করলাম, ইয়া রাসূলুল্লাহ! আমি স্বপ্নে দেখলাম, আপনার দেহ মোবারকের একটি টুকরো ছিন্ন করে আমার কোলে রাখা হয়েছে। আমার স্বপ্নের বিবরণ শুনে রাসূল আকরাম (সাঃ) বললেন, হে উম্মুল ফজল! ভয়ের কোন কারণ নেই। ফাতেমার ঘরে একটি পুত্র সন্তান হবে এবং সে তোমার কোলে থাকবে।

আল্লাহর রাসূল (সাঃ) এর এ ভবিষ্যদ্বাণীটি বাস্তবে রুপ নিয়েছিল, হযরত ফাতেমাতুজ জুররার ঘরে হযরত ইমাম হুসাইন (রাঃ) জন্ম গ্রহণ করেন। তিনি আমার কোলেই থাকতেন।

একদিন আমি হযরত হুসাইনকে কোলে নিয়ে রাসূলুল্লাহ (সাঃ) এর খেদমতে উপস্থিত হলাম। তাঁকে রাসূলুল্লাহ (সাঃ) এর কোলে দিয়ে আমি একটু অন্য মনস্ক হয়ে অন্যদিকে তাকিয়ে ছিলাম। হঠাৎ আল্লাহর হাবীব (সাঃ) এর নুরানী চেহারায় আমার দৃষ্টি পড়তেই দেখতে পেলাম, তার চোখ দুটো থেকে আঝোরে অশ্রু ঝরছে। আমি জিজ্ঞেস করলাম, হে আল্লাহর রাসূল! আপনার কি হল? উত্তরে তিনি এরশাদ করলেনঃ এইমাত্র জিব্রাইল (আঃ) বলে গেলেন, আমার এ কলিজার টুকরাকে আমার উম্মতের লোকেরা শহীদ করবে। আমি অবাক হয়ে আরজ করলাম, এ হুসাইনকে আপনার উম্মতরা কতল করবে? তিনি বললেন, জিব্রাইল (আঃ) তার নিদর্শন স্বরূপ লাল বর্ণের মাটি ও আমাকে দেখিয়েছেন।

পরবর্তীতে ইরাকের পাষণ্ডদের হাতে আওলাদে রাসূল ইমাম হুসাইন (রাঃ) নির্মমভাবে শহীদ হন। (বুখারী শরীফ)

পরবর্তী গল্প
কাফেরদের উপর ঝড়োহাওয়া

পূর্ববর্তী গল্প
বসরা শহরের পত্তন এবং চার প্রকার আযাব

ক্যাটেগরী